উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন তার দেশের সর্বশেষ মধ্যম পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে ‘নিখুঁত’ বলে প্রশংসা করেছেন। পিয়ংইয়ং জানিয়েছে, এ ক্ষেপণাস্ত্রকে সম্ভাব্য যুদ্ধে ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার বার্তা সংস্থা কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি বা কেসিএনএ আজ (সোমবার) জানিয়েছে, গতকাল পুকগুকসং-২ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার বিষয়টি কিম জং উন নিজেই পর্যবেক্ষণ করেছেন এবং পরীক্ষার সফলতায় তিনি গভীর সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি এ ক্ষেপণাস্ত্রকে তিনি যুদ্ধে মোতায়েন জন্য অনুমতি দিয়েছেন। ক্ষেপণাস্ত্রটিকে ‘খুবই নিখুঁত ও সফল কৌশলগত অস্ত্র’ বলে মন্তব্য করেছেন কিম জং উন।

কেসিএনএ জানিয়েছে, পুকগুকসং ক্ষেপণাস্ত্রের বিশ্বাসযোগ্যতা, নিখুঁতভাবে আঘাত হানার ক্ষমতা এবং লেট-স্টেজ ওয়ারহেড গাইডেন্স সিস্টেমকে পূর্ণাঙ্গভাবে যাচাই করা হয়েছে।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে পুকগুকসং ক্ষেপণাস্ত্রের প্রথম পরীক্ষা চালানো হয়। গতকাল চলেছে এর দ্বিতীয়দফা পরীক্ষা। এ ক্ষেপণাস্ত্রে ‘সলিড ফুয়েল’ ব্যবহার করা হয়েছে যার ফলে তাৎক্ষণিকভাবে একে নিক্ষেপ করা সম্ভব হবে। উত্তর কোরিয়া সাধারণত ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থায় ‘তরল জ্বালানি’ ব্যবহার করে থাকে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য