দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল উদ্ধারে অব্যাহত পুলিশী অভিযানে আন্তজেলা মোটরসাইকেল চোরের ৪ সদস্যকে আটক ও ১১টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করেছে চিরিরবন্দর থানা পুলিশ। সূত্র জানায়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৫ মে সোমবার দুপুরে চিরিরবন্দর উপজেলার রাণীরবন্দর ইছামতি কলেজ মাঠে চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল চোরেরা বিক্রি করার সময় পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২ চোরকে আটক ও ৪টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করে।

আটককৃত ২ চোর চিরিরবন্দর উপজেলার নশরতপুর ইউনিয়নের বালাপাড়া গ্রামের জহুরুল হকের পূত্র আনারুল হক (২৬) ও ঠাকুরগাও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার বেলদহিল গ্রামের জাকিরুল ইসলামের পূত্র হাফিজুল ইসলাম (২২)। তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী আবারো পুলিশ গত ১৭ মে বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে উপজেলার রাণীরবন্দর বাজার থেকে সাতনালা গ্রামের লুৎফর রহমানের পূত্র মোস্তাফিজুর রহমান ওরফে বাবু (৩০) ও সৈয়দপুর বাঙ্গালীপুর এলাকা থেকে নীলাফামারী সদর উপজেলার ডাকবাংলা এলাকার মনসুর আলীর পূত্র মঞ্জুরুল আলম ওরফে ছোটন (২৮) কে আটক করে।

আটককৃত আসামীর কাছ থেকে আরো ৭টি মোটরসাইকেলসহ মোট ১১টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত মোটরসাইকেল ও আটক ৪ চোরর বিরুদ্ধে এসআই মতিউর রহমান বাদী হয়ে চিরিরবন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করে । যার  নং-০৯, তারিখ ১৭-০৫-১৭। পরে মামলাটি দিনাজপুর ডিবি পরিদর্শক মো: ইকবাল হোসেনকে তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ  করা হয়।

চিরিরবন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: হারেসুল ইসলাম জানান, বিগত দিনে চিরিরবন্দর উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় এদের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। মোটরসাইকেল উদ্ধার ও সংঘবদ্ধ দিনাজপুর আন্তজেলা মোটরসাইকেল চোরদের আটক করতে ১ মাস ধরে উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় চোরদের আটক  ও চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল  উদ্ধারে অনুসন্ধান অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য