জম্মু-কাশ্মিরে ‘শের-ই-কাশ্মির আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার’ (এসকেআইসিসি)-এ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত নারীরা ‘আজাদি’র দাবিতে স্লোগান দিয়ে ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু করলে সেখান থেকে চলে আসতে বাধ্য হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। এ সময় নিরাপত্তারক্ষীরা তাকে কোনোক্রমে অনুষ্ঠানস্থল থেকে বের করে আনে এবং তাকে বিশেষ ঘেরাটোপের মধ্যে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

মঙ্গলবার ওই অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রীর আসার বিরোধিতা শুরু হলে লোকজনের মধ্যে হুড়োহুড়ি, আতঙ্ক এবং চরম বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। এ সময় বেশ কিছু চেয়ার ভাঙচুর করা হয় এবং পানির বোতল ছোঁড়া হয়। অন্যদিকে, ভূমিকম্প হওয়ার গুজব রটনা হলে সেখান থেকে বেরিয়ে পড়ার জন্য তাড়াহুড়ার মধ্যে কমপক্ষে এক ডজন নারী আহত হন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ক্ষুব্ধ এক নারী অভিযোগ করে বলেন, ‘আমাদের শোষণ করে আমাদের রাজনৈতিকভাবে ব্যবহার করতে চাওয়া হয়েছিল। আমরা কীভাবে তা বরদাস্ত করতে পারি? আমাদের তরুণদের প্রত্যেকদিন মারপিট করা হচ্ছে।’

এদিন মুখ্যমন্ত্রী সেখানে পৌঁছাতেই অনুষ্ঠানস্থলের পিছনের দিকে বসে থাকা নারীরা তার বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। এ সময় বিক্ষোভকারীরা “আমরা কী চাই? আজাদী” স্লোগানে উত্তাল হয়ে ওঠেন।

ক্ষুব্ধ এক নারী বলেন, আমাদের সঙ্গে মিথ্যা বলা হয়েছিল। কর্মকর্তারা প্রশিক্ষণ দেয়ার নামে তাদের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। আমাদের বলা হয়নি যে মুখ্যমন্ত্রী এখানে আসবেন।

এদিন সরকারের গ্রামোন্নয়ন দপ্তরের উদ্যোগে নারীদের বিভিন্ন স্বনির্ভর গোষ্ঠীর জন্য একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল এসকেআইসিসি কনভেনশন হলে। ওই বিক্ষোভকে খাটো করে দেখাতে উপস্থিত সাংবাদিকদের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সরকার নারীদের জন্য কাজ করতে বদ্ধপরিকর।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য