যুক্তরাষ্ট্রের ফিনিক্স শহরে গত বছর ধারাবাহিক কয়েকটি গুলিবর্ষণের ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে হত্যায় দায়ী বলে সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে গত মাসে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যের পুলিশ মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছে, খবর বিবিসির।

২০১৫ সালের অগাস্টে সংঘটিত একটি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় গ্রেপ্তার অ্যারন সৌসিদোর (২৩) বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এবার ২০১৬-র জানুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত আরো আট ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হচ্ছে।

এসব হত্যার উদ্দেশ্য সম্পর্কে পরিষ্কার হওয়া না গেলেও সবগুলো হত্যাকাণ্ড সে একাই ঘটিয়েছে বলে পুলিশের বিশ্বাস।

এক সংবাদ সম্মেলনে ফিনিক্সের পুলিশ প্রধান জেরি উইলিয়ামস জানান, সন্দেহভাজনের মায়ের সঙ্গে ‘ডেট’ করার কারণে ২০১৫ সালে সে ৬১ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করে।

এরপর ২০১৬ সালের এক ঘটনায় তার নির্বিচার গুলির শিকার হয়ে ১২ বছরের এক বালিকা এবং ৫৫ বছর বয়সী এক নারী নিহত হয়। তারপর থেকে ধারাবাহিকভাবে ফিনিক্সে বেশ কয়েকটি খুনের ঘটনা ঘটে।

কিন্তু পরে এসব হত্যাকাণ্ড নিয়ে গণামাধ্যম ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা শুরু হলে জুলাইয়ে হত্যাকাণ্ড বন্ধ হয় এবং হত্যাকারীর গা ঢাকা দেয়।

ওইসব হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে এই ব্যক্তি কীভাবে সম্পৃক্ত তার বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দেয়নি পুলিশ। তবে সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ, প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা ও ব্যালিস্টিক ম্যাটেরিয়াল পরীক্ষার মাধ্যমে তাকে শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অ্যারনকে গ্রেপ্তারের পর এক বিবৃতিতে ফিনিক্সের মেয়র গ্রেগ স্ট্যান্টন বলেছেন, “আজ দিনটি ফিনিক্স শহরের জন্য একটি শুভ দিন।”

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য