কুড়িগ্রাম-চিলমারী সড়কে রসুলপুর এলাকায় সড়ক দূর্ঘটনায় রৌমারী প্রেস ক্লাব সভাপতি ও দৈনিক বর্তমান পত্রিকার রৌমারী প্রতিনিধি আব্দুর রাজ্জাক রাজু নিহত হয়েছেন। রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে স্ত্রী-সন্তানসহ মোটর সাইকেল যোগে রংপুর থেকে রৌমারী ফেরার পথে তিনি সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,উলিপুর-চিলমারী সড়কের রসুলপুর(চুনিয়ারপাড়) এলাকায় পৌঁছলে গরু বহনকারী একটি পিকআপ ভ্যান পিছন দিক থেকে ধাক্কা দেয়।

এসময় মোটর সাইকেলে থাকা তার স্ত্রী ও শিশু কন্যা সন্তানসহ ছিটকে পড়ে। তারা অক্ষত থাকলেও পিকআপের ধাক্কায় সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাক রাজু(৪৫) ঘটনাস্থলেই মারা যান। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে চিলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে উপজেলা স্বাস্থ্য প.প. কর্মকর্তা ডা. সুভাষ চন্দ্র সরকার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত আব্দুর রাজ্জাক রাজু রৌমারী উপজেলার রৌমারী পাড়া গ্রামের মো. বক্তার হোসেনের পুত্র। তিনি রৌমারী প্রেসক্লাবের সভাপতি, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক, উপজেলা ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ছিলেন।

সড়ক দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে চিলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপজেলা চেয়ারম্যান শওকত আলী সরকার বীরবিক্রম, উলিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মো.হায়দার আলী মিঞা, চিলমারী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল কুদ্দুছ সরকার, জেলা পরিষদ সদস্য রেজাউল করিম লিচু, উপজেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল বারী সরকার, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন সরকার শিরিন, কুড়িগ্রাম প্রেস ক্লাব সভাপতি মমিনুল ইসলাম মঞ্জুসহ স্থানীয় সাংবাদিকরা উপস্থিত হয়ে নিহতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

এদিকে ঘটনার পরপরই স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় ঘন্টাব্যাপী চিলমারী-কুড়িগ্রাম সড়ক অবরোধ করে। পরে বেলা আড়াইটার দিকে নিহতের বড় ভাই মো. রফিকুল ইসলাম সাংবাদিক রাজুর মরদেহ গ্রহণ করে রৌমারীতে নিয়ে যান। আব্দুর রাজ্জাক রাজু স্ত্রী, ১ কন্যা ও ১ পুত্র, বাবা, মা, ভাই বোনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য