বহু পুরুষের হৃদয়কে খান খান করে দিয়ে অভিনেত্রী পাওলি দাম বিয়ের পিড়িঁতে বসতে চলেছেন। আগামী ৪ঠা ডিসেম্বর বিয়ের দিন ধার্য হয়েছে।  পাত্র যে ফিল্ম  ইন্ডাস্ট্রির কেউ নন সেটা আগেই জানা যায়।

তিনি আসামের রাজধানী গুয়াহাটির এক সফল ব্যবসায়ী। অর্জুন দেবের সঙ্গে বিয়ে হবে কলকাতায় নয়। একেবারে বরের দেশে, গুয়াহাটিতে।   জানা গেছে, পাত্র বিদেশে শিক্ষিত হলেও গুয়াহাটিতে পৈত্রিক ব্যবসাতেই মন দিয়েছেন।

কিভাবে আলাপ পাওলির সঙ্গে ? আর মন দেয়া-নেয়া ? বিভিন্ন সুত্রে জানা গেছে, বছর দুই আগে কলকাতায় ইতালীয় কনসাল জেনারেলের দেয়া পার্টিতেই পাওলির সঙ্গে পরিচয় হয় অর্জুনের। এরপর থেকেই মাঝে মাঝে দেখা সাক্ষাৎ থেকে প্রেম গভীরতর হতে সময় নেয়নি।

দুজনে মিলে এরই মধ্যে বিদেশ ঘুরে এসেছেন বলে বিশ্বস্ত সুত্রের খবর।  সংবাদ মাধ্যমে তাদের নিয়ে আলোচনা হলেও বিয়ে ঠিক হয়েছে কয়েকদিন আগে। গুয়াহাটির তাজ হোটেলে বিয়ে হবে। তার পর ৬ই ডিসেম্বর সেখানেই রিসেপশন এবং ফুলশয্যা। তার কিছুদিন পরে কলকাতায় রিসেপশনের আয়োজন হবে।

দিনটা অবশ্য এখনও স্থির হয়নি। তবে বিয়ে নিয়ে পাওলি কিছুই জানাতে চাননি। শুধু বলেছেন, এ নিয়ে আমি এখনই কিছু বলতে চাইছি না। টেলিভিশনে ‘তিথির অতিথি’ সিরিয়াল দিয়ে পাওলির অভিনয় জীবনের শুরু। তবে গৌতম ঘোষের ‘কালবেলা’ই তাকে অভিনেত্রীর অন্য পরিচয়ে পৌঁছে দেয়।

শ্রীলংকার পরিচালকের তৈরি ‘ছত্রাক’-এর সাফল্য এবং তারপর নানা ভিন্নধর্মী ছবিতে পাওলি নিজেকে প্রমাণ করেন। অবশ্য সেইসঙ্গে সেক্সি তকমাও লেগে গিয়েছে তার নামের সঙ্গে। ‘হেট স্টোরি’ দিয়ে তার হিন্দি ছবিতে প্রবেশ। এর মাঝে টিভি ধারাবাহিক ‘মহানায়ক’-এ সুচিত্রা সেন হিসেবে তিনি ছাপ রেখেছেন নিজের কাজের।

জানা গিয়েছে, বিয়ে করলেও ছবি করা তিনি সমান তালে চালিয়ে যাবেন। কলকাতা-বলিউডের পাশাপাশি বাংলাদেশের ছবিতেও অভিনয় করেছেন পাওয়লি। চলতি বছরই তার অভিনীত ছবি ‘সত্ত্বা’ মুক্তি পায়। এতে তার নায়ক ছিলেন বাংলাদেশেরই সুপারস্টার শাকিব খান। এছাড়া ইন্দো-বাংলার যৌথ প্রযোজনায় ‘মনের মানুষ’ ছবিতেও অভিনয় করেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য