ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা ফেডেরিকা মোগেরিনি আবারো বলেছেন, পাশ্চাত্যের সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা একটি আন্তর্জাতিক চুক্তি এবং আমেরিকা একা এটি বাতিল করতে পারে না।

তিনি শুক্রবার ইতালির ফ্লোরেন্স শহরে ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর এক সম্মেলনে বলেন, নয়া মার্কিন প্রশাসনের এতদিনে একথা উপলব্ধি করার কথা যে, মধ্যপ্রাচ্যসহ গোটা বিশ্বের স্বার্থে ইরানের পরমাণু সমঝোতা মেনে চলা উচিত। কেউ এটিকে পাশ কাটিয়ে যেতে চাইলে তা কারো জন্য সুখকর হবে না।

ইরানের পরমাণু সমঝোতা সাফল্যের সঙ্গে বাস্তবায়িত হচ্ছে উল্লেখ  করে মোগেরিনি বলেন, ইউরোপীয় দেশগুলো এই সমঝোতা বাস্তবায়নের জন্য ব্যাপকভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছে। এই সমঝোতা মাত্র দু’টি দেশ বা পক্ষের মধ্যকার চুক্তি নয় বরং গোটা বিশ্ব সমাজের সঙ্গে ইরানের চুক্তি বলে মন্তব্য করেন তিনি।

২০১৫ সালের জুলাই মাসে জাতিসংঘের পাঁচ স্থায়ী সদস্যদেশ ও জার্মানিকে নিয়ে গঠিত ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের পরমাণু সমঝোতা সই হয়। এ সংক্রান্ত আলোচনা ও চুক্তি সইয়ে মধ্যস্থতার ভূমিকা পালন করেন মোগেরিনি।

তিনি শুক্রবার ফ্লোরেন্সে আরো বলেন, ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের এই সমঝোতা স্বাক্ষরিত হওয়ার ফলে বিশ্ব আগের চেয়ে বেশি নিরাপদ হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য