আফগানিস্তানের রাজধানী গত বুধবার সকালে কাবুলের মার্কিন দূতাবাসের সামনে ন্যাটো বাহিনীর কনভয় লক্ষ্য করে আইএস জঙ্গিদের ঘটানো বিস্ফোরণে অন্তত আটজন নিহত এবং ২৫ জনেরও বেশি আহত হয়েছে। এদের মধ্যে বেশির ভাগই সাধারণ নাগরিক। আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ খবর জানায়। খবর এএফপি’র।

জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) এ হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করেছে। নিজস্ব সংবাদ সংস্থা ‘আমাক’-এর মাধ্যমে আইএস জানায়, ওই হামলায় অন্তত ৮ জন মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে। অন্য দিকে ন্যাটোর দাবি, হামলায় তাদের তিন জন সেনা আহত হয়েছেন। তবে তাঁদের প্রাণের ঝুঁকি নেই। সূত্রের খবর, এ দিন বড়সড় হামলারই ছক ছিল জঙ্গিদের।

প্রতিদিনের মতোই এ দিনও ন্যাটো বাহিনী কাবুলের রাস্তায় টহল দিচ্ছিল। হঠাৎই কাবুলের মার্কিন দূতাবাসের সামনে একটি গাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটে। হামলায় অস্ত্রশস্ত্র ভর্তি ন্যাটোর দু’টি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিস্ফোরণের ধাক্কায় রাস্তায় একটি ছোটখাটো গর্ত তৈরি হয়েছে। ক্ষতি হয়েছে অন্তত তিনটি গাড়িররও। ঘটনাস্থলে ছুটে যায় দমকল বাহিনী ও বেশ কয়েকটি অ্যাম্বুল্যান্স।

এক মাস আগেই আফগানিস্তানে ঘুরে গিয়েছেন মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিস। সফরে যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে জঙ্গি দমনের জন্য প্রয়োজনীয় কৌশল নিয়েও আলোচনা করেন তিনি। তিনি জানিয়েছিলেন, মার্কিন সেনা ও স্থানীয় সেনাবাহিনী, দু’পক্ষের জন্যই এ বছরটি কঠিন হতে চলেছে। আইএস ও আল-কায়দা জঙ্গিদের রুখতে আফগানিস্তানে ইতোমধ্যে ৮,৪০০ সেনা মোতায়েন করেছে আমেরিকা। ন্যাটো বাহিনীতে রয়েছেন আরও ৫০০০ জন।

তিন সপ্তাহ আগেই আফগান-পাক সীমান্ত সংলগ্ন নানগরহর প্রদেশের কাছে আইএসের ঘাঁটি লক্ষ্য করে এ যাবৎকালের বৃহত্তম বোমা ফেলে আমেরিকা। তাতে নিহত হয় অন্তত ৯০ জন জঙ্গি। তার বদলা নিতেই এ দিন মার্কিন বাহিনীর ওপর হামলা কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আফগানিস্তানের ন্যাটোর কম্যান্ডার জেনারেল জন নিকোলসন জানান, আইএসের ওপর অভিযান জারি থাকবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য