বিরলে জমি-জমার বিরোধের জের ধরে গাছ কর্তনের অভিযোগ উঠেছে। থানার পুলিশ গাছগুলি আটক করে স্থানীয় ইউপি সদস্যের হেফাজতে রেখেছে। প্রকৃত গাছের মালিককে এখন পর্যন্ত আটককৃত গাছগুলি হস্তান্তর করেনি পুলিশ।

অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার শহরগ্রাম ইউনিয়নের বাসুদেবপুর গ্রামের মৃত দেবেন্দ্র নাথ রায়ের পুত্র পরিমল চন্দ্র রায় দীর্ঘদিন ধরে রাজারামপুর মৌজার ১৭৩ নং দাগের ১ একর সম্পত্তি ভোগদখল করে আসছে।

ওই সম্পত্তিতে তিনি মেহগুনিসহ বিভিন্ন প্রজাতির কাঠের গাছ রোপন করেন। গত ২৪ এপ্রিল একই গ্রামের তাহের আলী (২৬) ও তাঁর ভাই আখতারুল ইসলাম (২৮) সহ ৪/৫ জন ওই সম্পত্তি তাঁদের বলে দাবী করে গাছগুলি কর্তন করতে থাকে।

বাঁধা দিতে গেলে তাদের সম্পত্তি দাবি করে বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। নিরুপায় হয়ে পরিমল চন্দ্র রায় বিরল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কর্তনকৃত গাছগুলি উদ্ধার করে ইউপি সদস্যের হেফাজতে রাখে। উভয়পক্ষকে ওই সম্পত্তির কাগজপত্রাদি নিয়ে থানায় আসতে বলেন।

পরিমল চন্দ্র রায় বলেন, তিনি ওই সম্পত্তি দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখল করে আসছেন। গাছ রোপন করার প্রায় ২০ বছর অতিবাহিত হতে চলছে। হঠাৎ করে তাঁরা ওই সম্পত্তি ও গাছগুলি দাবী করছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য