শাহরুখ আর অজয়ের দ্বন্দ্ব বুঝি চলতেই থাকবে। তবে এর মধ্যে সালমান ঢুকে পড়লে সে দ্বন্দ্বের অবসানও ঘটবে। অন্তত এবার ঘনিয়ে ওঠা আগুনের ধোয়া শুরুতেই নিবে গেল বলে মনে হচ্ছে।

ঈদে মুক্তি পাচ্ছে সালমান খান অভিনীত ছবি ‘টিউবলাইট’। শাহরুখ এবং অজয় দুজনেই চান মুক্তির অপেক্ষায় তাঁদের যে ছবি, তার ট্রেলার যেন জুড়ে দেওয়া হয় সালমান খানের ছবির সঙ্গে। এই অঙ্কটি মোটেই কঠিন নয়। সালমানের ছবি তো দেখতে যাবে লাখ লাখ মানুষ। সে সময় যদি নিজের ছবির ট্রেলার চালানো যায়, তাহলে পরবর্তীকালে বাণিজ্যিক দিক থেকে ছবিগুলো লাভবান হবে। এই দর্শকেরাই নতুন ছবি দেখতে হলে ভিড় করবে।

অনেকেই হয়তো জানেন, শাহরুখ আর অজয়ের মধ্যে গোল বেঁধেছিল ২০১২ সালে। সে বছর একই দিনে মুক্তি পেয়েছিল শাহরুখের ‘জাব তাক হ্যায় জান’ আর অজয়ের ‘সন অব সরদার’। মনমালিন্যটা বেশ গাঢ় হয়ে উঠছিল, তবে তার অবসান ঘটে বুলগেরিয়ায় গিয়ে দুজন একসঙ্গে ডিনার করার পর।

অজয়ের ছবির নাম ‘বাদশাহো’। ইমতিয়াজ আলী পরিচালিত শাহরুখের ছবিটির নাম এখনো ঠিক হয়নি।

‘টিউবলাইট’ ছবির সঙ্গে তাহলে কোন ছবির ট্রেলার প্রদর্শন করা হবে? সিদ্ধান্ত হয়েছে, অজয়-শাহরুখ দুজনের ছবির ট্রেলারই দেখা যাবে ‘টিউবলাইটের শোয়ে। তাই আপাতত নতুন করে দুই নায়কের দ্বন্দ্ব যুদ্ধের আশঙ্কা নেই বলেই মনে হচ্ছে।

সালমানের ব্যানারের সিইও আমার বুটালা জানিয়েছেন, ‘দুজনের পক্ষ থেকেই আমাদের অনুরোধ করা হয়েছ। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, চুক্তির সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে দুজনের ছবির ট্রেলারই আমরা আমাদের ছবির সঙ্গে চালাব।’ মিডডে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য