দিনাজপুরের বীরগঞ্জের গোলাপগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ স্থানীয়দের তোপের মুখে খেলার মাঠে গরু হাট বন্ধ করে দিয়েছে ইজারদার।

সোমবার বেলা ১২টার দিকে সচেতন নাগরিক সমাজ ও শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে এ বিদ্যালয়ের মাঠের মুল গেটে তালা লাগিয়ে দেয় ছাত্রছাত্রীরা যাতে করে মাঠে হাট বসতে না পারে। গতকাল সোমবার ছিল হাটবার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন গোলাপগঞ্জ আঞ্চলিক শাখার আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুর রহিম, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লিমন সরকার, মরিচা ইউনিয়নের সেচ্ছাসেবীলীগের সভাপতি মোঃ রজিবুল ইসলাম। মরিচা ইউনিয়নের সেচ্ছাসেবীলীগের সাধারণ সম্পাদক শামিম আহমেদ।

১০ শ্রেণীর ছাত্র সাব্বির হোসেন বলেন, সোমবার আবার মাঠ ফিরে পেয়েছি আর যেনো গরু হাট বসানো না হয়।

মরিচা ইউনিয়নের সেচ্ছাসেবীলীগের সভাপতি মোঃ রজিবুল ইসলাম বলেন, বিদ্যালয় মাঠের প্রায় পুরো জায়গায় হাট বসায় বিপন্ন হয়ে উঠেছিল মাঠ ও বিদ্যালয়ের পরিবেশ। যার ফলে অনেক শিক্ষার্থী হাটবারে বিদ্যালয়ে আসতে অপারগতা প্রকাশ করতো।

পুরো বিদ্যালয়ের মাঠজুড়ে গরুর বর্জ্য ও আবর্জনায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের সৃষ্টি হচ্ছে। মাঠে গরুর হাট বসায় দেখা দিয়েছে বড় বড় গর্ত। শিক্ষার্থীরা খেলাধুলাও করতে পারতো না।

গোলাপগঞ্জ আওয়ামীলীগের আঞ্চলিক শাখার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লিমন দুঃখ প্রকাশ করে জানান, প্রতি সপ্তাহে দুই দিন করে ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গরুর হাট বসানো হয়। দুপুর ১টা থেকে গরুর হাটে বেচাকেনা চলে সন্ধ্যা পর্যন্ত। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

গরুর হাট বসানোর ইজারাদার নওসাদ জানান, স্কুল মাঠ থেকে গরুর হাট সরিয়ে এনেছি। আর বসবে না। স্কুলের প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলামের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চেয়ে মুঠো ফোন দিলেও রিসিভ করেননি তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য