নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের শহীদ ডা. জহুরুল হক সড়কের (বিচালী হাটি) আবাসিক হোটেল স¤্রাটে গত শুক্রবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান পরিচালনা করে। সৈয়দপুরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম ওই আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে যৌনকর্মী, খদ্দের ও হোটেলে ম্যানেজারসহ ৫ জনকে আটক করে।

আটক ব্যাক্তিরা হলেন, হোটেল স¤্রাটের মানেজার শহরের কাজীপাড়ার মৃত আজগার আলীর পুত্র নুর ইসলাম (৪২) ও কাজীরহাটের মাহবুবুবার রহমানের পুত্র ফাইয়াজ (৪৫) এবং হোটেল বয় বাঙ্গালীপুর দারুল উলুম মোড়ের মোহাম্মদ হোসেনের পুত্র মঞ্জুর আলম মনু (৩০) ও খদ্দের ডিমলা উপজেলার মধ্য গয়াবাড়ির মহির উদ্দিনের পুত্র প্যারা মেডিকস্ (চিকিৎসা সহকারী) জাকারিয়া পিন্টু।

আটক যৌনকর্মী সাবিনা খাতুন (৩০) নীলফামারী সদরের বাড়াইপাড়ার মৃত আব্দুস সাত্তারের কন্যা। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক সৈয়দপুরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম প্রত্যেককে এক বছর করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

উল্লেখ্য যে, যৌন কাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে আটক জাকারিয়া পিন্টু দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার পাকেরহাটস্থ প্রাইম ডায়াগোনস্টিক সেন্টারে প্রতি মঙ্গলবার রোগীদের সেবা প্রদান করেন। তিনি একজন চিকিৎসা সহকারী মাত্র। অথচ নিজেকে যৌন ও চর্ম রোগ বিশেষজ্ঞ সেজে সাধারন মানুষকে ধোকা দিয়ে আসছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য