বলিউড আগাগোড়াই কুসংস্কারাচ্ছন্ন। কোন প্রযোজকের ইংরেজি হরফে ‘কে’ একটু বেশিই পছন্দ তো কারও ‘এ’। অতিরিক্ত বর্ণ বাড়িয়ে বানিজ্যিক বাজারে ছবির সিদ্ধিলাভের চেষ্টা একটু আধটু করেই থাকেন বলিউডি ছবির নির্মাতা থেকে নির্দেশকেরা। এই তালিকায় রয়েছে একতা কপূর থেকে করণ জোহরও। এও শোনা যায় করণের ছবি ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’এর সেটে কাজলের হোঁচট খেয়ে পড়ে যাওয়াই নাকি সে সিনেমার সুপারহিট হওয়ার প্রধান কারণ! তবে কাজল-করণের তিক্ততা বেড়ে যা হয়েছে, তাতে  কাজলের এ হেন হোঁচটের আর সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

বলিউডি কুসংস্কারের ফের প্রমাণ মিলল সল্লু মিঞার পরবর্তী ছবি ‘টিউবলাইট’-এর পোস্টারে। সলমনের বেশির ভাগ ছবিই মুক্তি পায় ইদে। নায়কের ধারণা, ইদে হিট হয় বেশি। এ ছবির ক্ষেত্রেও এর অন্যথা হয়নি। পোস্টারেও তেমন কোনও গলদ চোখে পড়ছে না। কাঁধে ব্যাগ, মাথায় টুপি, আর একটা জ্যাকেট পড়ে দাঁড়িয়ে ‘দাবাং’ সলমন, লেখা রয়েছে ‘কেয়া তুমহে ইয়েকিন হ্যায়’।
পুরোটাই বেশ স্বাভাবিক। তা হলে কুসংস্কারটি কোথায়?

দাঁড়ানোর ভঙ্গিতে! সলমনের প্রায় সব সিনেমারই প্রথম পোস্টারে এভাবেই দেখা গিয়েছে ‘সুলতান’কে৷ ‘ওয়ান্টেড’ হোক বা ‘এক থা টাইগার’, ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’ হোক বা ‘দাবাং’— সবেতেই এই এক লুকে সলমনের পিঠ দেখানো। কোনও ভাবেই এটি হাতছাড়া করতে চাননি সলমন। ‘টিউবলাইট’-এর পোস্টারেও তাই এভাবেই ধরা দিলেন তিনি। ১৯৬২ সালের ইন্দো-চিন যুদ্ধের সময়টাকে তুলে ধরা হয়েছে এ সিনেমায়। তবে পরিচালক কবির খানের দাবি, যুদ্ধ ছবির ব্যাকড্রপ মাত্র।

‘টিউবলাইট’ এ অভিনয় করছেন চিনা অভিনেতা জু-জু, সলমনের ভাই সোহেল খান, প্রয়াত ওম পুরি। একটি ক্যামিও চরিত্রে অভিনয় করছেন কিঙ্গ খানও।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য