ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে এশিয়া এনার্জির দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করে আলটিমেটাম ঘোষনা করেছেন তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ফুলবাড়ী শাখা।

আলটিমেটাম অনুযায়ী আগামী ৮ মে এর মধ্যে মামলা প্রত্যাহার না করা হলে ৯ মে বিকেল ৪টায় স্থানীয় নিমতলা মোড়ে অবস্থান কর্মসূচী পালন করে কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচী ঘোষন করবেন। বুধবার সকাল ১১টায় স্থানীয় নিমতলা মোড়ে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এই আলটিমেটাম ও আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষনা করেছেন তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ফুলবাড়ী শাখার আহ্বায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম (জুয়েল)।

তিনি তার লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন ২০০৬ সালে ২৬ আগস্ট কথা কথিত বহু জাতিক কোম্পানি এশিয়া এনার্জির মদদে ৩ জন আন্দোলনকারী নিরীহ জনতাকে হত্যা করে। একই সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গুলিতে আহত হয় অসংখ্য নিরিহ জনসাধারণ। সে সময় ফুলবাড়ী বাসীর গণআন্দোলনের মুখে তৎকালীন বিএনপি জামাত জোট সরকার আন্দোলনকারী জনতার সাথে ৬দফা চুক্তি করতে বাধ্য হয়।

আর তৎকালী বিরোধী দলের নেতা ও বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী ফুলবাড়ীতে এসে ফুলবাড়ী জনগণের সাথে একাত্মা ঘোষনা করেছিলেন। দলমত নির্বিশেষে উল্লেখিত ৬দফা চুক্তি অত্রঅঞ্চলের জনগণের কাছে প্রাণের দাবী হয়ে উঠেছে। চুক্তির আংশিক শর্ত পূরণ হলেও এশিয়া এনার্জিকে দেশ থেকে বহিস্কার ও তাদের দালাল সহযোগিদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এই চুক্তি অনুযায়ী আন্দোলনকারী কোন নেতার নামে কোন মামলা করতে পারবেনা বলে উল্লেখ থাকলেও গত ২০১৪ সালের ২৬ শে নভেম্বর হঠাৎ এশিয়া এনার্জির প্রধান গ্যারিয়েনলাই ফুলবাড়ীতে এসে ফুলবাড়ীর জনতাকে উস্কানী এবং ক্ষেপিয়ে তোলে।

এই ঘটনায় জনতার রোষানলে পড়ে গ্যারিয়েনলাই ফুলবাড়ী থেকে পালিয়ে গেলেও জনৈক সাইদুর রহমান নামে এক ব্যক্তি আন্দোলনকারী নেত্রীবৃন্দের নামে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। এর ৬মাসের মাথায় আরো একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। যার ৬দফা চুক্তির সম্পূর্ণ পরিপন্থি। এজন্য অবিলম্বে ৬দফা চুক্তির পরিপন্থি মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান। অন্যথায় আবারো ফুলবাড়ীর মানুষকে নিয়ে ২০০৬ সালের ন্যায় একটি গণআন্দোলন গড়ে তোলার হুশিয়ারি দেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখার সদস্য সচিব জয় প্রকাশ গুপ্ত, কমিটির অন্যতম নেতা হামিদুল হক, সঞ্জিব কুমার (জিতু), সামিউল ইসলাম চৌধুরী, কমল চক্রবর্তীসহ স্থানীয় নেত্রীবৃন্দ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য