গতকাল থেকে চিত্রনায়ক শাকিব খান ও চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের বিয়ে-সন্তানসহ বিভিন্ন বিষয় সামনে আসার পর একের পর এক ঘটনা সামনে আসছে। বিভিন্ন নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে ধীরে ধীরে শাকিব ও অপু সব প্রকাশ করছেন। দুজনের সম্পর্ক নিয়ে চলা আলোচনায় এসেছে আরেক চিত্রনায়িকা শবনম বুবলীর নাম।

তাকে নিয়েই নাকি শাকিব-অপুর সম্পর্কে টানাপড়েন চলছে। গতকাল চুপ থাকলেও আজ সকালে এ বিষয়ে মুখ খুলেছেন বুবলী। একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাসের মাধ্যমে এ বিষয়ে নিজের মত প্রকাশ করেছেন। বুবলী ফেসবুকে লিখেছেন, আমি প্রথমেই একটা জিনিস জানতে চাই গতকাল কেন অপু বিশ্বাস এত দিনের আড়াল ভেঙে সরাসরি চ্যানেল এ গিয়ে এসব কথা বললেন? কই এতদিন তো যাননি, কারো সামনে আসতে চাননি কেন? কই সাংবাদিক ভাইয়েরা তো এত চেষ্টা করেও সামনে আনতে পারলেন না, মুখ খোলাতে পারলেন না, বরং আপনারা নাকি যখন জিজ্ঞেস করেছেন তখন নাকি নানান কথা বলেছে।

তার ভাষ্যমতে, ২০০৮ সাল থেকে সে বিবাহিত। তাহলে এতদিন কেন মর্যাদা চায়নি? শাকিব না হয় লুকিয়েছে, সে লুকায়নি? কেন? ক্যারিয়ারের জন্য? একজন স্ত্রীর কাছে ক্যারিয়ার এতই বড়? ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবা ঠিক আছে কিন্তু নিজের মর্যাদা আদায় এর আগে কি ক্যারিয়ার? অপু বিশ্বাস আরো বলেছেন তার সাথে শাকিবের গত এক বছরের মতো কথা হয় না, এটা কি কোন সম্পর্কের জন্য স্বাভাবিক? তখনও তো স্বীকৃতি চাইতে সবার সামনে আসলো না।

কেন? সে আরো বললো তার ফবষরাবৎু হয়েছে গত বছর ঝবঢ়ঃবসনবৎ-এ তাহলে তখন আসলো না স্বীকৃতির জন্য। কেন? একজন মায়ের কাছে কি সন্তানের থেকে ক্যারিয়ার বড়? কই গত পরশুদিন পর্যন্ত তো সে বাচ্চাটির স্বীকৃতি চাইলো না! গতকাল যখন একটি পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হলো ‘রংবাজ’ ছবি নিয়ে, তখন তার নাকি মাথা খারাপ হয়ে গেল আমার নাম দেখে। সে চায় না শাকিব-বুবলী একসাথে কাজ করুক।

আজকে এখানে বুবলী না থেকে অন্য কেউ থাকতে পারতো যার সাথে শাকিবের জুটি গড়ে উঠেছে, অপু বিশ্বাস যেটা আগের অনেক নায়িকাদের ক্ষেত্রে করতে দেয়নি যা শাকিব নিজেই বলেছে। কেন রাজ্জাক স্যার-শাবানা ম্যাডাম, রাজ্জাক স্যার-ববিতা ম্যাডাম, রাজ্জাক স্যার-কবরী ম্যাডাম জুটি ছিলেন না? রিয়াজ ভাই-শাবনুর আপু, রিয়াজ ভাই-পূর্ণিমা আপু জুটি ছিলেন না? এমন তো অনেক উদাহরণ আছে, কিন্তু অপু বিশ্বাস তার বাইরে কোনো জুটি গড়ে উঠুক এমনটি চায়নি বলেই কি তার মর্যাদা এতদিন চাইলো না, আর সন্তানের স্বীকৃতি এতদিন চাইলো না? তাহলে কি!

সে এক্সারসাইজ করে নাকি ফিট হয়ে এসে আবার শাকিবের সাথে ছবি করতো। তাহলে তার মর্যাদা আদায়ের কথা না হয় বাদ দিলাম, তার বাচ্চাটির স্বীকৃতি কোথায় যেত? এরকম চাপাই থাকতো! ধরলাম শাকিব না করেছে বলতে কিন্তু মা হয়ে সে কি করলো? সে সব জায়গায় বেশ কিছুদিন ধরে বলে আসছে তার ছবি করেছি আমি। তাই আমি হতে পেরেছি। আরে বাবা, পৃথিবীর অনেক দেশেই তো অনেকের রিপ্লেসমেন্টে অনেকে ছবি করছে।

বলিউড থেকে শুরু করে ঢালিউড পর্যন্ত, এমনকি অপু বিশ্বাস নিজেও অন্য অনেকের ছবি করেছে। তাহলে এখানে এসব অযৌক্তিক কথা বলার কি মানে? একজন মানুষকে তারকা বানায় তার দর্শকরা, তার ভক্তরা। যার জন্য আমি আমার দর্শক এবং আমার ভক্তদের কাছে কৃতজ্ঞ এত অল্প সময়ে আমাকে এত ভালোবাসা দেয়ার জন্য। আর আজকে আমি ‘বসগিরি’ দিয়ে শুরু করলে ‘প্রিয়া রে’ ছবি দিয়ে আসতাম।

কারণ সব প্রস্তুতি সেভাবেই নেয়া হয়েছিল। আর হ্যাঁ সহশিল্পীদের সবার সঙ্গে সবার ভালো বোঝাপড়া থাকে যেটা আমার সঙ্গে শাকিবের আছে এবং থাকবে। তাকে অনেক শ্রদ্ধা করি যেটা একদিনে তৈরি হয় না যে একদিনে কমে যাবে। কারণ শাকিব খান আমাদের গর্ব আছেন এবং থাকবেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য