বীরগঞ্জ সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপ জেলায় গত কয়েক দিন ধরে ঝড় ও শিলাবৃষ্টির কারনে পিয়াজ বীজ উৎপাদন কারী কৃষকগণ  আনুমানিক ১কোটি টাকার ক্ষতির শিকার হয়েছেন।

পুরো উপজেলা ঘুরে জানা যায় আনুমানিক ২৫ একর জমির পিয়াজ বীজ শিলা বৃষ্টির কারনে সম্পুর্ণ নষ্ট হয়ে গেছে যার আনুমানিক মুল্য কোটি টাকার উপরে।
[ads1]
সুজালপুর ইউনিয়নের শিতলাই গ্রামের রাশেদুন নবী বাবু পিতা শরীফ উদ্দিন জানান, আমার ২ একর জমির বীজ নষ্ট হয়ে গেছে। প্রায় ১লক্ষ ২০হাজার টাকা খরচ করে ২ একর জমিতে বীজ ঊৎফাদনের চাষ করেছিলাম। আর ১সপ্তাহ সময় পেলে আমার ঘরে সাড়ে ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা উঠে আসতো । এখন সুধু মাথায় হাত ছাড়া আর কিছু করার নেই।

সবচেয়ে বেশী ক্ষতি হয়েছে পলাশ বাড়ী ইউনিয়নে। এই ইউনিয়নের বৈর বাড়ী গ্রামের আবুল হোসেন জানান, সাধারনত একরে ২শ থেকে ২৫০ কেজি বীজ পাওয়া যায়। এবার আবহাওয়া ভাল  হওয়ার কারনে ৩শ থেকে ৩৫০ কেজি বীজ পাওয়ার আশা করেছিলাম। কিন্ত বৃষ্টি ও বাতাসের কারনে সব শেষ এখন ক্ষেতের দিকে তাকালে চোখে জল আশে।

সাতোর ইউনিয়নের দুলাল জানান, আমার পুরো পুজি আমি পেয়াজের বীজ ঊৎপাদনে ব্যবহার করে এখন পুজিহীন কৃষকে পরিনত হয়েছি।

উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা প্রমোদ রায় জানান, আমি মাঠ পরিদর্শন করে এসেছি ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। কৃষদের কথা সত্যি। তবে প্রতিটি ক্ষেতে শতভাগ ক্ষতি হয়নি, কিছু,ক্ষেত থেকে সল্প আকারে কিছু বীজ সংগ্রহ করা যাবে।

প্রায় সকল কৃষকই সরকারের দিকে তাকিয়ে আছেন, যদি সরকার কোন উদ্দ্যেগ না নেন তাহলে তাদের পরর্বতি ফসল চাষ করা কষ্ঠ সাধ্য হয়ে যাবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য