ওয়াল স্ট্রিটের প্রতীকে পরিণত হওয়া ষাঁড়ের সামনে বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা একটি শিশু বালিকার ভাস্কর্য আগামি মার্চ পর্যন্ত রেখে দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন নিউ ইয়র্কের মেয়র।

৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবসে লিঙ্গ বৈষম্য এবং কর্পোরেট বিশ্বের বেতন বৈষ্যমের বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণ করতে ভাস্কর্যটি স্থাপন করা হয়েছিল। তারপর থেকে ব্রোঞ্জের এই ভাস্কর্যটি বিশ্বব্যাপী ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। সিটি কর্পোরেশনের সংশ্লিষ্ট এজেন্সিগুলোও এ সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছে বলে জানিয়েছেন মেয়র বিল দ্য ব্লাসিও। নির্ভীক বালিকার এই ভাস্কর্যটি তাৎক্ষণিকভাবে পর্যটকদের আকৃষ্ট করেছিল।

অনেকেই এটি দেখতে এসেছেন, সঙ্গে ছবি তুলেছেন। রোববার এই ভাস্কর্যটি সরিয়ে নেওয়া কথা ছিল। গত সোমবার চার ফুট উচ্চতার ওই ভাস্কর্যটির পাশে দাঁড়িয়ে ব্ল্যাসিও বলেন, নিউ ইয়র্কের লোকজনের কাছে অর্থপূর্ণ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে এটি। এই ভাস্কর্যটি ভয়ের বিরুদ্ধে দাঁড়ানো, ক্ষমতার বিরুদ্ধে দাঁড়ানো, যা কিছু সঠিক তার সপক্ষে দাঁড়ানোর অনুপ্রেরণা হয়ে উঠেছে। সবাইকে সে এমন একসময় অনুপ্রেরণা যোগাচ্ছে যখন আমাদের অনুপ্রেরণা প্রয়োজন হয়ে পড়েছে।

শিল্পি ক্রিস্টেন ভিসবাল এই কাজটি সম্পদ ব্যবস্থাপকদের সংস্থা ‘স্টেট স্ট্রিট গ্লোবাল অ্যাডভাইসরস্’ (এসএসজিএ) এর অনুমোদনে তৈরি করেন। সংস্থাটি বলেছে, বালিকাটি ভবিষ্যতের প্রতিনিধিত্ব করে। এসএসজিএ জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের তিন হাজার বৃহৎ বাণিজ্যিক কোম্পানিরগুলোর প্রতি চারটির একটির বোর্ডে একজনও নারী নেই।

ওয়াল স্ট্রিটের ক্ষ্যাপা ষাঁড়ের ভাস্কর্যটি ইতালিতে জন্ম নেওয়া শিল্পি আর্তুরো দি মোদিকার কাজ। ১৯৮৯ সলে স্থাপন করা ব্রোঞ্জের এই ভাস্কর্যটি ১৯৮৭ সালে পুঁজি বাজার ধসে পড়ার প্রতিক্রিয়ায় ‘মার্কিন জনগণের শক্তি ও ক্ষমতার’ প্রতিনিধিত্ব করেছিল। কিন্তু জনপ্রিয় স্থাপনায় পরিণত হওয়ায় এটি রেখে দেওয়া হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য