ফিলিপিন্সের রাজধানী ম্যানিলায় আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে মিছিলে অংশ নেওয়া নারীরা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মুখের ছাপ দেওয়া যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পতাকা পুড়িয়েছে।

ইএফই নিউজের খবরে বলা হয়, মিছিলে প্রায় দুইশ মানুষ অংশ নেয়। যাদের অধিকাংশই ছিলেন নারী। তারা মিছিল করে ম্যানিলায় অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের সামনে যায়।

তাদের কয়েকজনের হাতে আমেরিকার বড় একটি পতাকা ধরা ছিল। পতাকায় ট্রাম্পের মুখমণ্ডলের ছবি এবং ‘উদারীকরণ, বিনিয়ন্ত্রণ, বেসরকারিকরণ’ শব্দ তিনটি লেখা ছিল।

পরে তারা ওই পতাকাটি পুড়িয়ে দেয়। দ্য গ্যাব্রিয়েল গ্রুপ ওই মিছিলের আয়োজক। তাদের ক্ষোভের পেছনে মূল কারণ ছিল ট্রাম্পের অভিবাসন নীতি।

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া কয়েকজন বলেন, ট্রাম্পের অভিবাসন নীতির কারণে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করা ফিলিপিন্সের নারী ও মায়েদের অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে।

এমনকি যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করা স্বজনদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে ফিলিপিন্সের নাগরিকদের সেখানে ভ্রমণও কঠিন হয়ে পড়েছে।

মাদক সেবী এবং মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট রদরিগো দুর্তেতের ব্যাপক অভিযান নাগরিক অধিকারকে ক্ষুন্ন করছে বলেও মত অনেকের। যার প্রতীকী প্রতিবাদ হিসেবে কয়েকজনকে বেগুনী রঙের মুখোশ পরে মিছিলে অংশ নিতে দেখা গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য