ইন্দোনেশিয়ার বানদুং শহরের সরকারি একটি দপ্তরের প্রাঙ্গণে একটি প্রেসার কুকার বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে।

সোমবারের এ ঘটনার পর পুলিশের গুলিতে বোমা হামলাকারী আহত হয়েছেন, তার অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পশ্চিম জাভার শহরটিতে সকাল ৯টায় ওই বোমা হামলাটি চালানো হয়, তবে এতে কেউ আহত হয়েছেন বলে কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

পুলিশ জানিয়েছে, মোটরসাইকেলে করে আসা এক ব্যক্তি দপ্তরটির প্রাঙ্গণের এক পাশের একটি টেবিলে একটি প্রেশার কুকার রাখে, সেটি বিস্ফোরিত হলে ওই ব্যক্তি দৌঁড়ে দপ্তরের ভিতরে ঢুকে পড়ে, পরে পুলিশের অভিযানের সময় গুলিতে সে আহত হয়।

পশ্চিম জাভার পুলিশ প্রধান অ্যান্টন চার্লিয়ান মেট্রো টেলিভিশনকে বলেছেন, “আমরা একটি অস্ত্র উদ্ধার করেছি, বোম স্কোয়াড একটি ব্যাগপ্যাকও উদ্ধার করেছে। এখানে আরো বোমা আছে কিনা বোম স্কোয়াড তা তল্লাশি করে দেখছে।

“পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে আছে, তবে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে, কোনো কিছুই অবজ্ঞা করা যাবে না।”

পুলিশের সন্ত্রাস-বিরোধী ইউনিটের হাতে বন্দিদের ছাড়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করতেই বিস্ফোরণটি ঘটনো হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

চার্লিয়ান বলেন, “দেনসাসের (ইন্দোনেশিয়ার সন্ত্রাস-বিরোধী ইউনিট) হেফাজতে থাকা সন্দেহভাজনদের মুক্ত করাই এর উদ্দেশ্য। আমাদের ধারণা পুরনো একটি নেটওয়ার্ক থেকেই হামলাকারী এসেছে, তবে সে কে তা শনাক্ত করার চেষ্টা করছি আমরা।”

এর আগে পশ্চিম জাভা পুলিশের মুখপাত্র মুখপাত্র ইউসরি ইউনুস বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে সরকারি একটি দপ্তরে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছিলেন।

পশ্চিম জাভার বানদুং শহরের ওই ভবনটিতে হামলাকারীর সঙ্গে পুলিশের বন্দুকযুদ্ধের খবর ও ফুটেজ সম্প্রচার করেছে ইন্দোনেশীয় টেলিভিশনগুলো। সম্প্রচারিত ফুটেজে গুলি শব্দ শোনা গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য