দেড় যুগেরও অধিক সময় ধরে বন্ধ থাকা মোগলহাট স্থলবন্দরটি পূনরায় চালুর দাবীতে মানব বন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। বিকালে মোগলহাট আন্তর্জাতিক স্থলবন্দর বাস্তবায়ন কমিটির ডাকে বাজারের নূরল-দীন মুক্ত মঞ্চের সামনে দুই ঘন্টাব্যাপি এ মানব বন্ধন হয়। কর্মসূচীতে স্থানীয় ব্যবসায়ী, সুশীল সমাজের নাগরিকসহ সর্বস্তরের জনগন অংশ নেয়।

কমিটির আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আফজাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন, কমিটির যুগ্ন আহ্বায়ক এ্যাড. মোঃ তৈয়ব আলীসহ অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ। এ সময় বক্তারা বলেন, এক কালে লালমনিরহাটসহ দেশের ব্যবসা বানিজ্যে মোগলহাট স্থলবন্দরের সাথে ভারতের সাতটি অঙ্গরাজ্যের ব্যাপক বানিজ্য ছিল।

কাঠ, কয়লা, পাথর, সার ইত্যাদি পণ্য আনা হতো এই বন্দর দিয়ে। কিন্তু নদী ভাঙ্গনের ফলে উভয় দেশের মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী ধরলা নদীর উপর নির্মিত গীতালদহ সেতুটির একটি অংশ ভেঙ্গে যায়। পরে রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় স্থল বন্দরটি বন্ধ হয়ে যায়। তবে বিভিন্ন উপায়ে পাসপোর্ট ধারী যাত্রীরা যাতায়াত করলেও ১৯৯১ সালে মোগলহাট থেকে লালমনিরহাট পর্যন্ত রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেলে যাত্রী পারাপারও বন্ধ হয়ে যায়।

এদিকে ভারতের গীতালদহ ও বাংলাদেশের মোগলহাট স্থলবন্দরটি পূনরায় চালুর জন্য ভারত ও বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা সরকারের কাছে প্রস্তাব পেশ করে। যা বিবেচনাধীন রয়েছে। এ বন্দরটি পূনরায় চালু হলে লালমনিরহাটসহ দেশের অর্থনৈতিক ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন হবে বলে ব্যবসায়ীরা জানান। এছাড়াও বন্দরটি চালু হলে জেলার মানুষের ব্যাপক কর্মসংস্থানসহ আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হবে।

মানব বন্ধনে অংশগ্রহনকারী নের্তৃবৃন্দ অবিলম্বে বন্ধ হয়ে যাওয়া মোগলহাট স্থলবন্দরটি পুনরায় চালুর জন্য সরকারের কাছে জোড় দাবী জানিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য