সোহেল সানী, পার্বতীপুর থেকেঃ দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিকদের চাকুরী স্থায়ী করনের দাবিতে ডাকা কর্মবিরতির কর্মসূচী স্থগিত করা হয়েছে। ১৫ ডিসেম্বর স্থানীয় সংসদ সদস্য, খনি কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে দাবীর ব্যাপারে সমঝোতা না হলে ১৭ ডিসেম্বর নতুন কর্মসুচি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।

স্থানীয় সংসদ মোস্তাফিজুর রহমান ফিজারের আহবানে জাতীয় বুদ্ধিজীবি ও বিজয় দিবসকে সামনে রেখে সমঝোতার লক্ষ্যে কর্মবিরতির কর্মসুচি স্থগিত করা হয়।

আজ (১৪ ডিসেম্বর) বুধবার দুপুরে খনি এলাকায় অনুষ্ঠিত শ্রমিক সমাবেশে কর্মসূচি স্থগিতের ঘোষনা দেন বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি রবিউল ইসলাম। এর আগে মঙ্গলবার রাতে খনির কনফারেন্স রুমে শ্রমিকদের সাথে খনি কর্তৃপক্ষের এক বৈঠক অনুষ্টিত হয়।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এস.এম.এন আওরঙ্গজেব, মহাব্যবস্থাপক (প্লানিং এন্ড এক্সপ্লোরেশন) এবিএম কামরুজ্জামান, পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তরফদার মাহমুদুর রহমান, শ্রমিক সংগঠনের উপদেষ্টা হাফিজুল ইসলাম প্রামানিক, পার্বতীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাক আহম্মেদ, শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি রবিউল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক আবু সুফিয়ান, অর্থ সম্পাদক মোরসালিন রহমান, সাবেক সভাপতি ওয়াজেদ আলী প্রমুখ।

খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস.এম.এন আওরঙ্গজেব বলেন, আপাতত শ্রমিকরা তাদের কর্মসূচি স্থগিত করেছে। ১৫ ডিসেম্বর স্থানীয় সংসদ সদস্য প্রাথামিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী এ্যাড. মোস্তাফিজুর রহমানের উপস্থিতিতে ত্রিপক্ষিয় বৈঠকে শ্রমিকদের দাবির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ৮ডিসেম্বর এক শ্রমিক সমাবেশে ১৩ ডিসেম্বরের মধ্যে খনিতে কর্মরত প্রায় ১১শ শ্রমিকের চাকুরী স্থায়ীকরনের দাবি মেনে নেওয়া না হলে বুধবার থেকে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি শুরু করার আলটিমেটাম দেওয়া হয়েছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য