নিজস্ব প্রতিনিধি ॥ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস-২০১৬ পালিত হয়েছে। বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. রুহুল আমিন’র নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শহীদ মিনার বেদীতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদ, হল, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

পরে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের তাৎপর্যের উপর শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শ ও নিদের্শনা বিভাগের পরিচালক প্রফেসর ডা. এস এম হারুন-উর-রশীদ’র  সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. রুহুল আমিন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কৃষি অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মো. আনিস খান, বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. বলরাম রায়, আইআরটি’র পরিচালক প্রফেসর মো. মিজানুর রহমান, রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. মো. সাইফুর রহমান, প্রক্টর প্রফেসর ড. এটিএম শফিকুল ইসলাম, প্রগতিশীল কর্মকর্তা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক  আনম ইমতিয়াজ হোসেন, হাবিপ্রবি’র ছাত্রলীগ নেতা নাহিদ আহমেদ নয়ন, মোস্তফা তারেক চৌধুরী, মো. মমিনুল ইসলাম মোনেম, প্রগতিশীল কর্মচারী পরিষদের পক্ষে মো. আব্দুর রহিম প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর মো. রুহুল আমিন বলেন, জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের মাধ্যমে বুদ্ধিজীবীদের হত্যাসহ ও মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের সাথে জড়িতদের বিচারকাজ করে চলেছেন।

বদর বাহিনীর কমান্ডারসহ অনেকের বিচারের রায় কার্যকর হয়েছে। আমরা প্রত্যাশা করছি, পর্যায়ক্রমে সকল অভিযুক্তদের বিচার এবং বিচারের রায় কার্যকর করা হবে। বুদ্ধিজীবীদের আদর্শের চেতনায় উদ্ভুদ্ধ হয়ে দেশের অগ্রগতিতে অর্পিত দায়িত্ব  পালন করতে তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য