ঘানার বিরোধীদলীয় নেতা নানা আকুফো-এদো দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে জয়ী হয়েছেন।

বিবিসি বলছে, দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট জন মাহামা বুধবারের এই নির্বাচনে আকুফো-এদোর কাছে পরাজয় স্বীকার করে নিয়েছেন।

নির্বাচন কমিশন ফলাফল ঘোষণা করার পর মাহামা পরাজয় স্বীকার করে নেন বলে তার দলের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন।

আকুফো-এদো অঙ্গীকার করেছিলেন, উচ্চ-মাধ্যমিক পর্যায় পর্যন্ত শিক্ষা অবৈতনিক করবেন। পাশাপাশি আরো কল-কারখানা স্থাপন করবেন।

কিন্তু সমালোচকেরা তার এইসব অঙ্গীকার  বাস্তবায়ন আদৌ সম্ভব কিনা তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন।

আকুফো-এদো জয়ী হওয়ার পর দেশটির রাজধানী আক্রায় তার কর্মী-সমর্থকেরা উল্লাসে মেতে উঠেন।

সেনা শাসনের অবসানের পর ১৯৯২ সাল থেকে ঘানায় বহুদলীয় গণতন্ত্র রয়েছে। আর নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণার পর শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে তাতে দেশটি তার রাজনৈতিক ইতিবাচকতাকে ধরে রাখতে সক্ষম হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

নিউ প্যাট্রিয়টিক পার্টির আকুফো-এদো তৃতীয়বারের প্রচেষ্টায় নির্বাচনে জয়ী হলেন। এরআগে দুইবার তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পরাজিত হন।

দেশটির ভঙ্গুর অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার প্রচারণা চালিয়ে ভোটারদের মন জয় করেন তিনি।

নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর তার বাসভবনের সামনে জড়ো হওয়া কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে আকুফো-এদো বলেন, “আজ রাতে আমি আনুষ্ঠানিকভাবে অঙ্গীকার করছি, আমি আপনাদের হতাশ করবো না।”

তিনি বলেন, “আপনাদের আশা এবং চাওয়াকে বাঁচিয়ে রাখতে আমি আমার ক্ষমতার সবটুকু ঢেলে দেব।”

ঘানার নির্বাচন কমিশন (ইসি) ঘোষণা দিয়েছে, আকুফো-এদো ৫৩.৮৫ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। আর মাহামা পেয়েছেন ৪৪.৪০ শতাংশ ভোট।

মোট ভোটারের ৬৮.৬২ শতাংশ ভোট দিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য