দিনাজপুরে আদালতের নির্দেশও মানছে না একদল ভুমিদস্যু, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী নিজস্ব প্রতিনিধি ॥ দিনাজপুরে আদালতের নির্দেশও মানছে না একদল ভুমিদস্যু, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী। ক্ষমতার জোরে তারা প্রতিপক্ষের ঘরবাড়ী ভেঙ্গে দিয়েছে এবং ঘরের টিন পর্যন্ত নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

প্রাপ্ত অভিযোগে জানা গেছে, দিনাজপুর পৌর শহরের রামনগর এলাকার বাসিন্দা মৃত বিলাত আলীর ছেলে নির্মাণ শ্রমিক মো. একলাস আলীর পশ্চিম রামনগরস্থ মৌজার জে এল নং-৫৯, খতিয়ান ১৭১/১, এস এ-১৭৩, দাগ নং-৪৫৫, জমির পরিমান .০৯৩৫ সম্পত্তি ভোগ দখল করার সড়যন্ত্র করে আসছিল একই এলাকার ১৫/১৬ জনের একদল ভুমিদস্যু, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী।

এই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে উক্ত ভুমিদস্যু, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীরা গত ২৩-১১-২০১৬ তারিখে নির্মাণ শ্রমিক মো. একলাস আলীর সম্পতিতে অনাধিকার প্রবেশ করে ওই সম্পত্তির উপর থাকা সেমি পাকা বাড়ী ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে এবং ওই বাড়ীর ৬ বান্ডেল টিন যার আনুমানিক মূল্য ৩০ হাজার টাকা নিয়ে যায়।

এই ঘটনার পর বাদী নির্মাণ শ্রমিক মো. একলাস আলী কোতয়ালী থানায় গেলে থানা কর্তৃপক্ষ আদালতে মামলা করার পরামর্শ দিলে দিনাজপুরের বিজ্ঞ আইন শৃঙ্খলা বিঘœকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) আদালতে মামলা করেন।

উল্লেখ্য, এর আগেও ২০১১ সালে আরেকবার ওই সম্পত্তি দখলের চেষ্টা করা হলে আদালতে মামলা দায়ের করেন তিনি। দীর্ঘ শুনানীর পর বিজ্ঞ আদালত বাদী নির্মাণ শ্রমিক মো. একলাস আলীর পক্ষে রায় প্রদান করেন এবং কোতয়ালী থানাকে বাদীর সম্পত্তিতে প্রবেশে সহযোগিতা করার নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশে থানা কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা নির্মাণ শ্রমিক মো. একলাস আলী তাঁর সম্পত্তিতে বসতঘর নির্মাণ করেন।

কিন্তু গত ২৩-১১-২০১৬ তারিখে উক্ত ভুমিদস্যু, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীরা নির্মাণ শ্রমিক মো. একলাস আলীর সম্পতিতে অনাধিকার প্রবেশ করে ওই সম্পত্তির উপর থাকা সেমি পাকা বাড়ী ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে এবং ওই বাড়ীর ৬ বান্ডেল টিন যার আনুমানিক মূল্য ৩০ হাজার টাকা নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে বাদী নির্মাণ শ্রমিক মো. একলাস আলী তাঁর দখলীয় সম্পত্তি ভোগ দখল ও বসবাস করতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য