হাবিপ্রবিতে মৌমাছি পালন বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিতওয়েব ডেক্সঃ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদ ও কীটতত্ত্ব বিভাগের উদ্যোগে নেদারল্যান্ডের সিনিয়র বিশেষজ্ঞ প্রতিষ্ঠান ‘পাম’ এর সাথে মৌমাছি পালন বিষয়ে জ্ঞান ও তথ্য বিনিময় শীর্ষক এক সেমিনার বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম-২ এর অনুষ্ঠিত হয়েছে।
উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. রুহুল আমিন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের ডীন প্রফেসর মো. আনিস খানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য ও মূল নিবন্ধ উপস্থাপন করেন পাম নেদারল্যান্ডের সিনিয়র বিশেষজ্ঞ ড. হেন্স পোলমার। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান ও পোস্টগ্র্যাজুয়েট স্টাডিজ অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. বলরাম রায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. মো. সাইফুর রহমান প্রমূখ।

সেমিনারে মৌমাছি পালন এবং বাংলাদেশে এর সম্ভাবনা বিষয়ে প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন কীটতত্ত্ব বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. হাসান ফুয়াদ এলতাজ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেনেটিক্স অ্যান্ড এনিম্যাল ব্রিডিং বিভাগের চেয়ারম্যান ও পাম এর স্থানীয় প্রতিনিধি প্রফেসর ড. আব্দুল গাফ্ফার মিঞা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কীটতত্ত্ব বিভাগের প্রফেসর ড. আদনান আল বাচ্চু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর মো. রুহুল আমিন বলেন, আমাদের দেশে জমির পরিমান কম কিন্তু সেই অনুপাতে লোকসংখ্যা বেশী। এজন্য অধিক কর্মসংস্থানের জন্য আমাদের বিজ্ঞান ভিত্তিক ও আধুনিক টেকনোলজির  উপর দক্ষতা বাড়াতে হবে। মৌমাছি পালনের মাধ্যমে দেশের অনেক বেকার তরুনের কর্মস্থান হবে।

আজকের এ বিষয়ের সেমিনারে উপস্থিত হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা তথ্য পেয়ে সমৃদ্ধ হবে যা তারা তাদের গবেষণা কর্মে কাজে লাগাতে পারবে। বাংলাদেশের কৃষি ও পশু সম্পদ উন্নয়নে সহযোগীতার জন্য সিনিয়র বিশেষজ্ঞ প্রতিষ্ঠান ‘পাম’ ও এর বিশেষজ্ঞ ড. হেন্স পোলমার কে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান তিনি।

সেমিনারে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও গবেষকগণ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য