রাজিবপুরে নদী ভাঙ্গন প্রতিরোধে মানববন্ধনঅসময়ে নদী ভাঙ্গন রাজিবপুর উপজেলার মোহনগঞ্জ বাসীকে নাজেহাল করে ফেলেছে। প্রতিদিন ভাঙ্গছে বাড়িঘর। ভাঙ্গছে নয়াচর বাজার। ভাঙ্গনের নেই কোন  স্থায়ী প্রতিরোধ। বর্ষা মৌসুমে ভাঙ্গন ঠেকাতে মাননীয় সংসদ সদস্য কিছু জিও ব্যাগ ব্যবহার করলেও তা নদী গর্ভে বিলিন হয়ে যায়। গ্রামবাসীরা বাড়ি,বাড়ি থেকে বাশঁ ও বালির বস্তা দিয়েও ঠেকাতে পারেনি ভাঙ্গন।

গত কয়েক দিন যাবৎ দিয়ারার চর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকা থেকে শুরু করে নয়াচর বাজার পর্যন্ত ২ কিলো মিটার এলাকা জুড়ে প্রতিদিন নদী গর্ভে বিলিন হচ্ছে। গত ১ সপ্তাহে ৫০টির বেশি বাড়িঘর ও নয়াচর বাজারের ২০টি দোকানের জায়গা ব্রহ্মপুত্র নদীতে বিলিন হয়েছে। প্রায় শত বিঘা আবাদী জমিও গিলে ফেলেছে রাক্ষসী ব্রহ্মপুত্র নদ।

এলাকাবাসী উপজেলা প্রশাসনসহ জেলা প্রশাসককে বার বার অবহিত করেও ভাঙ্গন ঠেকানোর কোন বরাদ্ধ পারছেন না বলে অভিযোগ এলাকাবাসরি। তাই দলমত নির্বিশেষে এক কাতারে দাড়িয়ে নদী ভাঙ্গন ঠেকাতে মোহনগঞ্জ বাসী শুক্রবার বিকালে এক ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন করেছেন। স্কুল-কলেজের ছাত্র/ছাত্রীরা বই খাতা নদীর পাশ্বে রেখে নদীর তীরে দাড়িয়ে মানববন্ধন করেন।

তাদের একটাই দাবী মোহনগঞ্জ ইউনিয়নকে নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা করুক বর্তমান সরকার।মানববন্ধন শেষে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিলকিস খাতুন,মোহনগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুস সালাম তালুকদার,সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাবী সরকার,আওয়ামীলীগ নেতা আজিজল হক বিডিআর,ইউপি সদস্য আব্দুল মান্নান ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নুরুন্নবী প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য