ভুমিদস্যুরা জমির ধান জোবরদখল করে কেটার অভিযোগেসংবাদ সম্মেলনঃ সরকারী দলের দাপট খাটিয়ে এবং পুলিশের সহযোগীতায় ভুমিদস্যুরা ১ একর ৫০ শতক জমির ধান জোবরদখল করে কেটে নিয়েছে অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছে জমির প্রকৃত মালিকেরা। বাকী আরো জমির  ধান কাটর হুমকী দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা।

সোমবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে জনার্কীন সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সদরের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেন ও তার ম জিরাতুন নেছা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত Ÿক্তব্য পাঠ করেন মোঃ আনোয়ার হোসেন।

তিনি জানান,দিনাজপুর কোতয়ালী থানার নিশ্চিন্তপুর মৌজার ৬৪ নং খতিয়ানের ৪৯৯নং দাগের ৪ দশমিক ৮০ একর জমি পৈত্রিক সুত্রে প্রাপ্ত হয়ে ভোগদখল করে আসছি। আমরা হেসার উদ্দীনের পুত্র আফজাল হোসেন,আনোয়ার হোসেন,আলতাফ হোসেন ও জসিম উদ্দীন জমিটিতে সমানভাগে ভোগ করা অবস্থায় গত ৮/১১/১৬ তারিখে ভুমিদস্যুরা সাঙ্গোপাঙ্গা নিয়ে জমিতে লাগানো ধান কেটে নিয়ে যায়।

এব্যাপারেস্থনিীয় ভাবে কোতয়ালী থানায় কয়েকবার অভিযোগের জন্য গেলে পুলিশ আমাদের অভিযোগ গ্রহন করেনি। বালুবাড়ি মহল্লার রঞ্জু মোঃ সামসুজ্জোহা,মোঃ মানিক ও মুন্সীপাড়া মহল্লার মৃত আব্দুল জব্বারের পুত্র মাহবুর সন্ত্রাসী ও লাঠিয়াল বাহিনী দ্বারা জমির ধান কেটে নিয়ে যায়।

তারা তারা ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে ওই দিন জমির প্রকৃত মালিক হেসার উদ্দীন ও তার ছেলের বৌকে পুলিশ দ্বারা জোরপুর্বক থানায় নিয়ে আসেন। এসময় একটি হিরো হোন্ডা মোটরসাইকেল যাহার ন¤র ঢাকা মেট্টো এইচ-এ-১১২৪৩০ থানায় নেয়া এবং আটক রাখা হয়েছে । থানায় ভ্্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ছেলের বৌকে জরিমানা করে ছেড়ে দেয়া হলেও হেসার উদ্দীনকে ৫দিনে সাজা দিয়ে জেলখানায় পাঠানো হয়েছে। আমরা জমির প্রকৃত মালিক হয়েও আইনের দ্বারা শাস্তি ভোগ করছি এবং জমির হারানোর দুঃশ্চিন্তায় রয়েছি। জমির আরো ধান কেটে নিয়ে যাওয়ার হুমকী দিচ্ছে সন্ত্রাসী ভুমিদস্যুরা।

আমরা নিরীহ মানুষ প্রশাসন ও সরকারের কাছে ভুমি রক্ষার জন্যে জোর দাবী করছি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সালিউর সরকার ও সীমান্ত রায় প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য