Sui N10বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ বীরগঞ্জে গত সোমবার সন্ধ্যায় অপছন্দের পাত্রের সাথে কাবিন রেজিষ্ট্রি করায় বাংলা অনার্সের ছাত্রী গলায় দড়ি দিয়ে শয়ন ঘরে আত্মহত্যা করেছে।

বীরগঞ্জ থানা সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার পাল্টাপুর ইউনিয়ের পিকপাড়া গ্রামের জয়নুদ্দীনের মেয়ে ও বীরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের ছাত্রী জয়গুন (১৯)’র মতামত না নিয়ে অভিভাবক একই উপজেলার পার্শ্ববর্তী নিজপাড়া ইউনিয়নের দেবীপুর গ্রামে অশিক্ষিত অপছন্দের পাত্রের সাথে বিবাহ ঠিকঠাক করে।

ঘটনার দিন ঢেপা ব্রীজ এলাকার চাচা কাসেম আলীর বাড়ীতে কাজী ডেকে বিবাহের কাবিন রেজিষ্ট্রি করে। বিবাহের কাবিন রেজিষ্ট্রি করে পাত্রপক্ষকে অগ্রীম ২০ হাজার টাকা প্রদান করে। বাবা-মা ও চাচার উপর অভিমান করে শয়ন ঘরের সরের সাথে ছাগল বাধা রশি দিয়ে গলায় ফাঁস টাঙ্গীয়ে আত্মহত্যা করে।

বাড়ীর লোকজন জয়গুন ঘরের দরজা বন্ধ দেখে ডাকাডাকি করে পরে দরজা ভেঙ্গে ফাঁসে ঝুলতে দেখে পুলিশকে সংবাদ দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল লিপিবদ্ধ করে দাফনের নিদের্শ দেয়। এ ঘটনায় জয়নুদ্দীন বাদী হয়ে থানায় একটি অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা দায়ের করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য