সুবল রায়, দিনাজপুর থেকেঃ দিনাজপুর শহরের উপশহরে প্রায় দেড় কিলোমিটার সড়কের বেহাল দোশা। পুলহাট থেকে চক্ষু হাসপাতাল মোড় হয়ে প্রধান সড়কটি খানা-খন্দকে ভরা। এই সড়কের পাশে রয়েছে একটি চক্ষু হাসপাতাল এবং এ সড়ক দিয়ে যেতে হয় দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, ডায়াবেটিক্স হাসপাতাল এবং ইসলামিক হাসপাতাল।

এই রাস্তার ২ ধারে রয়েছে শতাধিক ক্লিনিক। ডায়াগনিষ্টক সেন্টার এবং প্রাইভেট হাসপাতাল সহ একটি হাই স্কুল ও ৬টি কিন্ডা গার্টেন স্কুল। এই সড়ক মেরামতের জন্য বাজেট থাকলেও তা মেরামত কিংবা সংস্কার করা হচ্ছেনা। এতে ভোগান্তি বৃদ্ধি পাচ্ছে পৌরবাসী সহ দুর দুরান্ত থেকে আগত ট্রাক, লড়ি, টেম্পু ও অটো রিক্সা। প্রতিদিন রাস্তার খানা খন্দকে আটকে উল্টে যাচ্ছে যানবাহন। হাত পা ভাংছে যাত্রীদের । অনেকে আহত হয়ে ভর্তি হচ্ছে হাসপাতালে।

প্রায় ২ বছর যাবৎ মেরামত না হওয়ায় পুলহাট থেকে ইসলামিক হাসপাতাল পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তা নিয়ে দিনাজপুরের পৌরবাসীরা পড়েছেন চড়ম ভোগান্তিতে। এই পথে কোন গাড়ী আসতে চায়না। দু-লাইন বিশিষ্ট সুরম্ব রাস্তাটির মাঝে আইলেন্ড রয়েছে। যাতে নানা জাতের ফুলগাছ এবং  দেবদারু গাছ শোভা পাচ্ছে। আইলেন্ডটি ঘিরা হচ্ছে লোহার গ্রিল দিয়ে।
[ads1]

এতো সুন্দর রাস্তা একটিও নেই। কিন্তু পৌর সভার উদাসিনতার কারণে সড়কটির বেহাল দোশা। রাস্তার মাঝখানে ছোট বড় অনেক গর্ত। যেখানে জমে থাকে বর্ষার জল। যান বাহন চলতে গেলে সেই গর্তে চাকা আটকিয়ে উল্টে পরে। বার বার অভিযোগ দিলেও এই সড়কটির কোন পরিবর্তন হয়নি। বরং দিন দিন তা আরো জনগনের ভোগান্তিতে পরিণত হচ্ছে। মালামাল পরিবহন এবং জরুরি ভাবে রুগী পরিবহন করতে পারছেনা এ্যাস্বুলেন্স। এটি একটি শহরের মধ্যে চিকিৎসার কেন্দ্র বিন্দু।

এই ব্যাপারে দিনাজপুর পৌর সভার মেয়রের সাথে কথা বললে তিনি জানান, তাদের বাজেট চলে এসেছে। তিনি জানান যত দ্রুত পারি আমরা এ সড়ক সহ দিনাজপুরের প্রতিটি ভাঙ্গা চুড়া সড়ক মেরামতের কাজ আরাম্ভ করবো। ইতো মধ্যে শহরের অনেক ভাঙ্গা চুড়া রাস্তা সংস্কারের কাজ আরাম্ভ করেছি। এটাও এবারে হয়ে যাবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য