যুক্তরাষ্ট্রে বিপণি বিতানে ৫ হত্যার সন্দেহভাজন আটকযুক্তরাষ্ট্রের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্েযর বার্লিংটন শহরে একটি বিপণি বিতানে গুলিবর্ষণ করে পাঁচজনকে হত্যার ঘটনায় পলাতক সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার একদিন পর শনিবার তাকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং তাকে ওক হারবারের বাসিন্দা আরকান সেটিন (২০) বলে শনাক্ত করেছে পুলিশ, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। কর্মকর্তাদের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, তুরস্কে জন্মগ্রহণকারী সেটিন স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে বৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছিলেন।

সেটিনকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে এর আগে এক টেলিফোন সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্য টহল পুলিশের মুখপাত্র কেইথ লিয়েরি। সিয়াটলের টেলিভিশন স্টেশন কেওএমও ট্যুইটারে দেওয়া এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বার্লিংটন থেকে ৪৮ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে ওক হারবার এলাকা থেকে সন্দেহভাজন গুলিবর্ষণকারীকে (সেটিন) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ জানিয়েছে, বিপণি বিতানের নিরাপত্তা ক্যামেরার ফুটেজে একটি গাড়ি দেখার পর গাড়িটির সঙ্গে সম্পর্কিত আরকান সেটিনকে সন্দেহভাজন হিসেবে শনাক্ত করা হয়। আইল্যান্ড কাউন্টি শেরিফ কার্যালয়ের লেফটেন্যান্ট মাইক হাওলি জানিয়েছেন, পরে গাড়িটি ওক হারবারে খুঁজে পাওয়া যায়। তিনি গাড়িটির দিকে এগিয়ে যাওয়ার সময় সন্দেহভাজন সেটিনকে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে গ্রেপ্তার করেন বলে জানান হাওলি।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তারের সময় সে কিছুই বলেনি, তাকে জিন্দা লাশের মতো লাগছিল। এ সময় সেটিনের কাছে কোনা অস্ত্র ছিল না বলে জানিয়েছে তিনি। ঘটনার রাতে অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে গুলিবর্ষণকারী বিপণি বিতানটি থেকে পালিয়ে গিয়েছিল বলে দাবি কর্তৃপক্ষের।

পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বার্লিংটনের ক্যাসকেড মলে গুলিবর্ষণে চার নারী ও এক পুরুষকে হত্যার জন্য গ্রেপ্তাকৃত সেটিনই দায়ি বলে মনে করা হচ্ছে। ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্য টহল পুলিশের মুখপাত্র সার্জেন্ট মার্ক ফ্রান্সিস জানিয়েছিলেন, মলের ম্যাকি’র স্টোর নামে একটি দোকানে ঢুকে হামলাকারী চার নারীকে গুলি করে হত্যা করে।

গুরুতর আহত অপর একজন (পুরুষ) পরে হাসপাতালে মারা যান। পুলিশ সন্দেহভাজন বন্দুকধারীর ছবি প্রকাশ করেছিল। ওই ব্যক্তিকে একটি রাইফেল হাতে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যেতে দেখা যায়। তবে বিপণি বিতানে হেঁটে প্রবেশ করার সময় তার হাতে কোনো রাইফেল দেখা যায়নি, কিন্তু পরে গোয়েন্দা ক্যামেরায় তাকে রাইফেলসহ দেখা যায় বলে শনিবার জানিয়েছেন মাউন্ট ভেরনন পুলিশ বিভাগের লেফটেন্যান্ট ক্রিস ক্যামোক।

পুলিশ আসার আগেই গুলিবর্ষণকারী ঘটনাস্থল থেকে সরে পড়ে। গুলিবর্ষণকারী একজনই ছিল বলে পুলিশের ধারণা। বার্লিংটন ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্যের (রাজধানী ওয়শিংটন নয়) প্রধান শহর সিয়াটল থেকে প্রায় ৬৫ মাইল উত্তরে। কী কারণে হামলা হয়েছে তা শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পরিষ্কার হয়নি। গুলিবর্ষণের এ ঘট্নার সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের যোগসূত্রের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে এফবিআই।

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের অপর এক বিপণি বিতানে এক ব্যক্তির ছুরিকাঘাতে নয়জন আহত হওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যেই বার্লিংটনের এ ঘটনা ঘটল। মিনেসোটার ঘটনায় হামলাকারী পুলিশের গুলিতে নিহত হন। এ ঘটনাকে সন্ত্রাসী তৎপরতা ধরে নিয়ে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে এফবিআই।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য