৩ সেপ্টম্বর থেকে ব্রডগেজ লাইনে আন্তঃনগর একতা ও দ্রুতযান ট্রেন চলাচল শুরুসোহেল সানী, পার্বতীপুর থেকেঃ আগামী ৩ সেপ্টেম্বর থেকে দিনাজপুর-ঢাকা রুটে আন্তঃনগর একতা ও দ্রুতযান ট্রেন দু’টি মিটার গেজের পরিবর্তে ব্রডগেজ রেলপথে চলাচল করবে। বর্তমানে ট্রেন দু’টি মিটারগেজ লাইনে চলাচল করছে। ট্রেন দু’টি ব্রডগেজ লাইনে চলাচল শুরু হলে ওই রেলপথে এক ঘণ্টা সময় কম লাগবে। ট্রেন দু’টি ১০টি করে কোচ নিয়ে আগামী ৩ সেপ্টেম্বর থেকে ব্রডগেজ লাইনে চলাচল করবে। কোচ কম হলেও যাত্রী পরিবহন হবে বেশি। সেই সাথে ট্রেন দু’টিতে বাড়বে ২০০ করে মোট ৪০০ আসন।

মিটারগেজ কোচে আসন সংখ্যা যেখানে ৬০ জন, সেখানে ব্রডগেজ কোচে আসন সংখ্যা ৯২ জন। ফলে প্রতিটি ব্রডগেজ ট্রেনে আসন সংখ্যা হবে প্রায় ৮০০। এর মধ্যে এসি বার্থ কোচ একটি, এসি চেয়ারকোচ একটি এবং অবশিষ্ট আসনগুলো হবে শোভন চেয়ার। ব্রডগেজ কোচের প্রস্থ ও উচ্চতা বেশি হওয়ায় মিটারগেজ ট্রেনের চেয়ে বেশি আরামদায়ক। তাছাড়া ব্রডগেজ ট্রেন, মিটারগেজ ট্রেনের চেয়ে দ্রুতগতি সম্পন্ন হওয়ায় সময়ও এক ঘণ্টা কম লাগবে বলে।

জানা গেছে, বর্তমানে মিটারগেজ লাইনে গার্ডব্রেক, পাওয়ার কার, খাবার গাড়িসহ ১৩টি করে কোচ নিয়ে আন্তঃনগর একতা ও দ্রুতযান ট্রেন দিনাজপুর-ঢাকা রুটে চলাচল করছে। প্রতিটি ট্রেনে আসন সংখ্যা ৬০৫ রয়েছে।

এদিকে, ব্রডগেজ ট্রেন চলাচলের লক্ষ্যে এরই মধ্যে পঞ্চগড়-দিনাজপুর-ঢাকা মিটারগেজ রেলপথ সংস্কার করে ডুয়েলগেজ বা মিক্সগেজ (মিটারগেজ-ব্রডগেজ) রেলপথে রূপান্তর করা হয়েছে। গত ২৬ আগষ্ট শুক্রবার বিকেলে ব্রডগেজ রেলপথে পরীক্ষামূলকভাবে ট্রেন চালানো হয়।

এব্যাপারে জানতে চাইলে পার্বতীপুর রেলস্টেশন মাষ্টার শোভন রায় বলেন, ঢাকা-খুলনা রুটের চিত্রা এক্সপ্রেস ও সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেনের ২০টি সাদা ইন্দোনেশিয়ান কোচ দিয়ে দিনাজপুর-ঢাকা রুটে আন্তঃনগর একতা ও দ্রুতযান ট্রেন ব্রডগেজ লাইনে চলাচল করবে। তিনি আরো জানান, ৩ সেপ্টেম্বর সকালে ঢাকার কমলাপুর রেল স্টেশনে রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক দিনাজপুর-ঢাকা রুটে ব্রডগেজ ট্রেন চলাচলের উদ্বোধন করবেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য