সীমান্তের এপারে বিএসএফের ক্যাম্প নির্মাণলালমনিরহাটের হাতীবান্ধা সীমান্তে কাঁটাতারের এপারে ক্যাম্প তৈরী করছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) বাঁধার মুখে নির্মাণকাজ বন্ধ রেখেছে বিএসএফ।

আজ সোমবার বিষয়টি নিয়ে দু‘দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বৈঠকে বসবেন বলে জানিয়েছেন লালমনিরহাট ১৫ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্ণেল বজলুর রহমান হায়াতী।
জানা যায়, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ)নারী সদস্যদের জন্য নতুন করে ক্যাম্প নিমার্ণের উদ্যোগ নেয় ভারত। লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধার সিংঙ্গীমারী সীমান্তের ওপারে ভারতীয় ফুলবাড়ি বিএসএফ ক্যাম্পের নারী সদস্যদের জন্য পৃথক ক্যাম্প তৈরীর কাজ শুরু হয়। কিন্তু নির্মাণাধীন ওই বিএসএফ ক্যাম্পের একটি দেয়াল কাঁটাতারের এপারে নো-ম্যান্স ল্যান্ড এলাকায় তৈরী করতে দেখে তাতে বাঁধা দেয় স্থানীয় বিজিবি।

সরেজমিনে গেলে দেখা যায়, হাতীবান্ধা উপজেলার সিংঙ্গীমারী সীমান্তে কাঁটাতারের এপারে ৮৯৪ নং আর্ন্তজাতিক সীমানা পিলার ঘেঁষে নতুন ভবন তৈরী করছে বিএসএফ। এতে করে ওই ভবনের প্রায় ২০০ মিটার দীর্ঘ একটি ইটের প্রাচীর কাঁটাতারের এপারের অংশে পড়েছে। তবে গত দুই দিন আগে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) পক্ষ থেকে কাঁটাতারের এপারে দেয়াল তৈরীতে বাঁধা দিলে নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখে বিএসএফ।

সীমান্তের বাসিন্দা লুৎফর রহমান (৫০) ও নুর ইসলাম (৩৫) জানান, বিএসএফ জোর করে কাটাঁতারের এপারে ইটের প্রাচীর তৈরী করছে।  আন্তর্জাতিক সীমানা পিলার ঘেঁষে কোন প্রকার স্থাপনা তৈরীতে বিধি নিষেধ থাকলেও তা উপেক্ষিত হচ্ছে বিএসএফের ওই ভবন নির্মাণে। স্থানীয় বিজিবি ক্যাম্পের প্রতিবাদ করায় বর্তমানে সেখানে নির্মাণকাজ বন্ধ রয়েছে। তাই বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশী সীমান্তবাসীদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

লালমনিরহাট ১৫ বিজিবির অধিনায়ক লে, কর্নেল বজলুর রহমান হায়াতী কাঁটাতারের এপারে বিএসএফের স্থাপনা নির্মাণের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘সীমান্তের অনেক জায়গায় এমন কাজ করছে বিএসএফ। আমরা বাধা দিয়েছি।’ এনিয়ে শনিবার দু‘দেশের সীমান্তররক্ষী বাহিনীর মধ্যে নির্ধারিত বৈঠকটি পিছিয়ে আগামী সোমবার করা হয়েছে। ওইদিন বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা হবে বলে জানান তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য