যুক্তরাষ্ট্রের অ‌্যালাবামায় ৫ জনকে হত‌্যাযুক্তরাষ্ট্রের অ‌্যালাবামা অঙ্গরাজ‌্যের সিট্রোনেল শহরের একটি বাড়িতে এক গর্ভবতী নারীসহ পাঁচজনকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে, এদের সবাইকে হত‌্যা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মিসিসিপি অঙ্গরাজ‌্যের সীমান্ত এলাকা থেকে এক ব‌্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে শনিবার জানিয়েছে পুলিশ, খবর সিএনএন ও বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

ওই বাড়ি থেকে পুলিশ চার মাস বয়সী এক শিশুকে উদ্ধার করেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় মোবাইল কাউন্টি কর্তৃপক্ষ।

হত‌্যাকাণ্ডে আগ্নেয়াস্ত্র ছাড়াও অন‌্য কয়েক ধরনের অস্ত্র ব‌্যবহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মোবাইল কাউন্টি শেরিফ দপ্তরের ক‌্যাপ্টেন পল ব্রুচ। তবে অস্ত্রগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানাননি তিনি।

কর্তৃপক্ষের বরাতে সিএনএন জানিয়েছে, লাশ উদ্ধারের কয়েক ঘন্টার পর নিজ রাজ‌্য মিসিসিপিতে ডেরিক রায়ান ডিয়ারম‌্যান নামে ২৭ বছর বয়সী এক ব‌্যক্তি আত্মসমর্পণ করেছেন। তার সঙ্গে নিহতদের সম্পর্ক বের করতে তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

রয়টার্স জানিয়েছে, ডিয়ারম‌্যান মিসিসিপির গ্রিন কাউন্টি শেরিফ দপ্তরে গিয়ে ওই পাঁচজনকে হত‌্যার কথা স্বীকার করে। সন্দেহভাজনকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে মোবাইল কাউন্টি শেরিফ দপ্তর।

সিনট্রোনেলের যে বাড়িটিতে লাশগুলো পাওয়া গেছে গ্রিন কাউন্টি সেখান থেকে ১৬ কিলোমিটার পশ্চিমে।

শনিবার দিনের শুরুর দিকে সিনট্রোনেলের পুলিশ ওই বাড়িতে ছিঁচকে ছুরির ঘটনা ঘটেছে বলে ৯১১-তে পাওয়া একটি কলে জানতে পারে। কিন্তু ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ কিছু পায়নি বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ক‌্যাপ্টেন ব্রুচ জানিয়েছেন, শনিবার ভোররাত ১টার পর ডিয়ারম‌্যান সম্ভবত সবাইকে খুন করেছেন।

হত‌্যাকাণ্ডের পর সন্দেহভাজন ওই বাড়ি থেকে এক নারী ও তিন মাস বয়সী এক শিশুকে অপহরণ করে গাড়িতে করে মিসিসিপি নিয়ে যায়, শনিবার বিকেলে সে গ্রিন কাউন্টি শেরিফ দপ্তরে গিয়ে আত্মসমর্পণ করে।

আত্মসমর্পণের সময় অপহৃতরাও তার সঙ্গে ছিল এবং তারা সুস্থ‌্য আছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য