আফসানা হত্যাকান্ডে জড়িতদের শাস্তির দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ে মানববন্ধনঢাকার মিরপুর সাইক পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের মেধাবী শিক্ষার্থী আফসানা ফেরদৌসের (২৪) রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসি।আজ বুধবার সকাল ১১ টায় রুহিয়া চৌরাস্তা মোড়ে এ মানববন্ধন করেছে আফসানার পরিবার ও এলাকাবাসি।

এ সময় রুহিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আহবায়ক তরিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে  বক্তব্য রাখেন রুহিয়া ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মামুনুর রশিদ,আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুর জব্বার,সাবেক ভিপি বদরুল ইসলাম,প্রভাষক   গোলাম মোস্তফা,ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল হক বাবু,সাবেক ছাত্রনেতা আবু সাইদ বাবু,বিএনপি নেতা আব্দল মালেক মানিক,আব্দুল হক,যুবলেিগর সাধারন সম্পাদক দুলাল রব্বানী,ছাত্রনেতা মোস্তফা,সোহাগ প্রমুখ।

ঠাকুরগাঁও জেলা মহিলা পরিষদের সাধারন সম্পাদক সুচরিতা দেব ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সানোয়ার পারভেজ পুলক মানববন্ধনের সঙ্গে একাত্বতা প্রকাশ করেন। বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, গত শনিবার ঢাকা মিরপুরের সাইক ইন্সটিটিউট অব ম্যানেজমেন্ট এন্ড টেকনোলজির স্থাপত্য বিদ্যার শেষ বর্ষের ছাত্রী আফসানা ফেরদৌস এর লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাওয়া যায় ।

তারপূর্বে সে কয়েকদিন নিখোঁজ ছিল। আফসানাকে তার প্রেমিক তেজগাঁও কলেজের ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান রবিন সহ কয়েক বন্ধু তাকে অপহরন করে এবং  কয়েকজন মিলে ধর্ষণের পর গলায় কিছু পেচিয়ে হত্যা করা হয় ।

শনিবার রাতে একটি অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন আসে আফসানার মামি সৈয়দা ইয়াসমিন রুমার মোবাইলে। ফোনে তাকে বলা হয়, ” বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে আফসানার লাশ আছে নিয়ে যান। ঢাকায় বসবাসরত তার আত্বীয় তৌফিক এলাহীকে বিভিন্ন হাসপাতালে খোঁজ খবর নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গ থেকে আফসানা ফেরদৌসীর লাশ শনাক্ত করে।রোববার আফসানা ফেরদৌসকে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রুহিয়া এলাকার কানিকশালগাঁও গ্রামে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়।

বক্তারা আফসানা মৃত্যুর জন্য দায়ী তেজগাঁও কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান রবিনকে গ্রেফতার করে মৃত্যুও রহস্য উদঘাটন পূর্বক ফাসির দাবি জানায়।অন্যথায় বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষনা দেয় তারা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য