সাঘাটায় ৩টি ব্রীজের এপ্রোচ সড়ক না থাকায় দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছেআরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলায় ৩টি সড়কের ব্রীজ নির্মাণ সম্পন্ন হলেও ব্রীজ সংলগ্ন এপ্রোচ সড়ক না থাকায় ওই সড়কগুলো দিয়ে চলাচলে জনগণের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ফলে এলাকার লোকজন বাঁশের সাকো বানিয়ে তার উপর দিয়ে যাতায়াত করছে। এদিকে কবে নাগাদ এপ্রোচ সড়কগুলো নিমির্তি হবে তাও এখনও অনিশ্চিত।

জানাগেছে, দূর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রায় অর্ধ কোটি টাকা ব্যয়ে জুমারবাড়ী বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের পূর্বাংশে (ওয়াপদা) খালের উপর নির্মিত ২টি ব্রীজ এবং অনন্তপুর কাদের আলীর দহ রেললাইন সংলগ্ন একটি ব্রীজ নির্মাণ করা হয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত এপ্রোচ সড়ক না থাকায় জনগণের তা কোন কাজে আসছে না।

উল্লেখ্য, এই ব্রীজ তিনটির গত অর্থবছরে নির্মাণ কাজ সমাপ্ত করা হয়। আব্দুল হাইয়ের বাড়ির সামনে নির্মিত ব্রীজটির দু’মাথায় সাইড ওয়াল পরিমাপ মত তৈরী না করেই মাটি ভরাট করে সংযোগ রাস্তা তৈরী করা হয়। ফলে সামান্য বৃষ্টিতেই ব্রীজের দুই মাথার মাটি ধসে গিয়ে ব্রীজটির সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

এছাড়া একই খালের দক্ষিণে বিপরীত ওয়াপদা খালের পূর্বপারের উপর নির্মিত ব্রীজের কোন সংযোগ সড়ক নেই। অনন্তপুর রেললাইন সংলগ্ন ব্রীজটির পশ্চিম পার্শে¦ সামান্য মাটি দ্বারা ভরাট করা হলেও ওই ব্রীজে হালকা কোন যানবাহনও চলাচল করতে পারে না। এ ব্যাপারে সাঘাটা উপজেলার পি.আই.ও মিঠুন কুন্ডু জানান, এখনও প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ পাওয়া যায়নি। বরাদ্দ সাপেক্ষে এপ্রোচ সড়ক নির্মাণ কাজ দ্রুত সম্পন্ন করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য