Dhanবোচাগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি॥ চলতি  আমন মৌসুমের শেষ সময়ে দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ উপজেলার কৃষাণ/কৃষাণীরা ফসলের মাঠ প্রস্তুত ও আমন ধানের চারা লাগানো নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছে। যদিও কৃষরা গত কয়েক মৌসুমে ধানের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ার হতাশা এবং আর্থিক ক্ষতি এখনও কাটিয়ে উটতে পারেননি। তার পরও তারা বর্তমান কৃষক বান্ধব সরকারের প্রতি আত্মবিশ্বাস রেখে নতুন আশায় বুক বাঁধছেন।

তাদের বিশ্বাস গত কয়েক মৌসুমে ধানের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ার ফলে তাদের যে পরিমান আর্থিক ক্ষতি হয়েছে চলতি ২০১৬-১৭ আমন মৌসুমে ধানের ন্যায্য মূল্য নির্ধারনের মাধ্যমে সরকার কৃষকের সে ক্ষতি পুরন করে দেবে।  এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি সম্প্র্রসারণ অধিদপ্তর জানিয়েছে, চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় উপশী ১৫হাজার ২৯০ হেক্টর, হাইব্রীড ৮শ হেক্টর ও স্থানীয় ৪শ হেক্টর সর্বমোট ১৬ হাজার ৪৯০ হেক্টর জমিতে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে।

এরমধ্যে হাইব্রীড ৩৫০ হেক্টর, উপশী ১১হাজার ৫শ হেক্টর ও স্থানীয় ১৫ হেক্টর সর্বমোট  ১১হাজার ৮৬৫ হেক্টর জমিতে চারা রোপন শেষ করেছে কৃষকরা। অবশিষ্ট ৪হাজার ৬২৫ হেক্টর জমিতে চারা রোপনের প্রস্তুতি চলছে।  এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ বাসুদেব রায় জানান কৃষকদের দ্রুত সময়ের মধ্যে চারা রোপন প্রক্রিয়া শেষ ফসল পরিচর্যা করার পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য