ক্ষমা চেয়ে নিলেন নাসিরুদ্দিনসম্প্রতি বর্ষিয়ান অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ একটি দৈনিককে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে বলেছিলেন, ‘সত্তরের দশকে হিন্দি ছবিতে এলো মধ্য মেধা। এই সময়ে ইন্ডাস্ট্রিতে এলেন রাজেশ খান্না নামে এক অভিনেতা। তার সাফল্য সত্ত্বেও আমার মনে হয় ওর অভিনয় ক্ষমতা সীমিত। বস্তুত উনি খারাপ অভিনেতা। তাকে বিরাট মননশীল বলেও আমার মনে হয়নি। তার ঘরানাটাই পরে ইন্ডাস্ট্রিতে প্রভাব ফেলেছে।’ তার এই মন্তব্য শুনে ক্ষুব্ধ হন রাজেশের বড় মেয়ে টুইঙ্কেল খান্না। শনিবার রাতে টুইটারে তিনি নাসিরুদ্দিনের উদ্দেশে লেখেন, ‘জীবিতকে যদি সম্মান না করতে পারেন, মৃতকে অন্তত করুন। যে মানুষটা আর সাড়া দেবে না, তাকে আক্রমণ করাটাই মধ্য মেধার পরিচয়।’ টুইঙ্কেলের পাশে দাঁড়ান বলিউড পরিচালক করণ জোহরও। টুইটারে তিনি বলেন, ‘আমি তোমার সঙ্গে একমত টুইঙ্কেল। বড়দের সম্মান করেই বলছি, এটা খুব বাজে রুচির পরিচয়।’ বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক আর বাড়তে না দিয়ে রোববারই ক্ষমা চেয়ে নেন নাসিরুদ্দিন শাহ। তিনি বলেন, ‘আমার মন্তব্যের জন্য যারা আঘাত পেয়েছেন, তাদের কাছে ক্ষমা চাইছি। রাজেশ খান্নাকে ছোট করার কোনও উদ্দেশ্য ছিল না আমার।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য