আরেক ইতিহাস সৃষ্টির প্রত্যাশায় যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়া নগরী। যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতার সনদ যে নগরীতে গৃহীত হয়েছিল, সেখানেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় সম্মেলন। ২৫ জুলাই থেকে অনুষ্ঠেয় সম্মেলনে দলের পক্ষ থেকে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রার্থিতা ঘোষণা করা হবে। দলের বাছাইপর্বে এগিয়ে থাকা হিলারি ক্লিনটনের নাম সম্মেলন থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষিত হবে। যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হিসেবে হিলারির জয়যাত্রার গর্বিত অংশীদার হতে চায় পশ্চাৎপদ নগরী ফিলাডেলফিয়া। ফিলাডেলফিয়া সম্মেলনের মধ্য দিয়ে ডেমোক্রেটিক পার্টি নিজেদের সমর্থকদের মধ্যে জাগরণ সৃষ্টি করতে চায়। আমেরিকার চলমান কুয়াশা ঢাকা রাজনৈতিক পরিবেশে অনুষ্ঠেয় সম্মেলনের দিকে দৃষ্টি এখন সবার। ১৭৭৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতার সনদ গৃহীত হয়েছিল উত্তর পূর্বের ঐতিহ্যের নগরী ফিলাডেলফিয়ায়। এ নগরীর ‘ইন্ডিপেন্ডেস হল’ আমেরিকার ইতিহাস-ঐতিহ্যের ধারক হয়ে হয়ে দাঁড়িয়ে আছে মাথা উঁচু করে।

এবারের নির্বাচনী বাছাইপর্বে রিপাবলিকান দলের চরম ডানপন্থী প্রচারে উসকে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক অঙ্গন। একইভাবে উদারনৈতিক রাজনৈতিক দল হিসেবে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রচার ছিল উত্তেজনায় ভরপুর। সাবেক ফার্স্টলেডি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনকে সামাল দিতে হয়েছে অতি উদারনৈতিক হিসেবে উঠে আসা সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্সকে। বাছাইপর্বের নাটকীয়তা রিপাবলিকানদের চেয়েও দীর্ঘায়িত হয়েছে ডেমোক্রেটিক পার্টির বেলায়। সামাজিক সাম্যের আহ্বান জানিয়ে দলের যুব-তরুণদের মধ্যে জাগরণ সৃষ্টি করা বার্নি স্যান্ডার্স শেষ পর্যন্ত হার মেনেছেন। মাত্র গেল সপ্তাহে বার্নি স্যান্ডার্স বাছাইপর্বের ডেলিগেট সংগ্রহে এগিয়ে থাকা হিলারি ক্লিনটনকে আনুষ্ঠানিক সমর্থন জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এ মুহূর্তে রিপাবলিকান দলের সম্ভাব্য প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ঠেকাতে হলে দলের সমর্থকদের ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই। স্যান্ডার্সের উদাত্ত¦আহ্বানের পরও তাঁর পক্ষে জাগরণ সৃষ্টি করা সমর্থকদের ক্ষোভ কমেনি। যুক্তরাষ্ট্রের প্রাতিষ্ঠানিক রাজনৈতিক প্রতিনিধি হিলারির কাছে সহজেই আত্মসমর্পণ করতে নারাজ ক্ষুব্ধ সমর্থকেরা।

কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, নানা নাগরিক সংগঠন, অভিবাসী গ্রুপ প্রতিবাদী ব্যানার প্ল্যাকার্ড নিয়ে ফিলাডেলফিয়া সম্মেলনে যোগ দেওয়ার প্রস্তুতি গ্রহণ করছে। ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় সম্মেলনের নেতারা একদিকে তাঁদের নির্বাচনী কর্মকৌশল নিয়ে ব্যস্ত অন্যদিকে এ সম্মেলনকে কেন্দ্র করে যেসব টানা বিক্ষোভ কর্মসূচি ইতিমধ্যে ঘোষণা করা হয়েছে তা সামাল দেওয়ার জন্য নগরী প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন। সামাজিক অসাম্যের বিরুদ্ধে কথা বলে উসকে ওঠা ডেমোক্রেটিক পার্টির একাংশের কাছে ফিলাডেলফিয়া নগরীতে জাতীয় সম্মেলন এবার আরও বেশি তাৎপর্যময়। একদা সমৃদ্ধের নগরী ফিলাডেলফিয়ার সামাজিক অসাম্য এখন আকাশচুম্বী। এ নগরীর পরিবারের গড় আয় এখন নিম্নমুখী। যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য নগরীতে বার্ষিক গড় আয় পরিবারপ্রতি ৫৩ হাজার ডলার। পিউ চ্যারিটেবল ট্রাস্টের দেওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী ফিলাডেলফিয়া নগরীর পরিবারের বার্ষিক আয় এখন ৩৯ হাজার মার্কিন ডলার। বিরাজমান সামাজিক অসাম্যের এ নগরীতে দাঁড়িয়ে নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটন প্রার্থী হিসেবে তাঁর নির্বাচনী মূল বক্তব্য রাখবেন। সম্মেলনকেন্দ্রের বাইরে সমর্থকদের ক্ষোভ প্রশমিত করে বার্নি স্যান্ডার্স কীভাবে ঐক্যের আহ্বান জানান তা দেখার অপেক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ।

সম্মেলনকেন্দ্রে কারা বক্তব্য রাখবেন, কে হবেন হিলারি ক্লিনটনের রানিংমেট ভাইস প্রেসিডেন্ট এ নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। ডেমোক্র্যাট পার্টি জাতীয় সম্মেলন কমিটি দলকে সামাল দিয়ে রিপাবলিকান প্রার্থীকে মোকাবিলা করার কর্মকৌশল ঘোষণা করবে। আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন, হিলারিতনয়া চেলসি ক্লিনটন ডেমোক্র্যাট দলের জাতীয় সম্মেলনে বক্তব্য রাখবেন। বক্তার পূর্ণাঙ্গ তালিকা সংগোপনে চূড়ান্ত করা হচ্ছে। প্রভাবশালী গণমাধ্যমগুলো চার দিনের লাইভ সম্প্রচার করার প্রস্তুতি হাতে নিয়েছে। তারকা বক্তাদের উপস্থিতি ঘটিয়ে চমক দেখাতে চায় ডেমোক্র্যাট পার্টি। ওবামা প্রশাসনের কোনো মন্ত্রী সম্মেলনে বক্তব্য রাখবেন না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য