বিরাঙ্গনানিজস্ব প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে মহান মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর হাতে চরম ভাবে নির্যাতিত উপজেলার ৪০ জন বিরাঙ্গনা হতদরিদ্র নারীর খোঁজ নেয়নি কেউ।

চড়ারহাট এলাকার বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ হাসান আলী জানান- বিরাঙ্গনাদের মুক্তিযোদ্ধা সম্মানে ভূষিত করতে তিনি স্থানীয় প্রশাসন সহ সরকারের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের বরাবরে আবেদন করেছেন।

ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দফায় দফায় মাঠ পর্যায়ে তদন্ত হয়েছে। এছাড়াও প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকেরা বিরাঙ্গনাদের জীবন যাত্রার মান নিয়ে সচিত্র প্রতিবেদন স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় ঘটা করে প্রকাশ হয়েছে।

এ বিষয়ে বিরাঙ্গনাদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা অশ্রুসজল চোখে জানান- আমাদের খোঁজ কেউ নেয়নি। অনেকে বার্ধক্য জীবনে অতি কষ্টে অনাহারে অর্ধাহারে জীবিকা নির্বাহ করে চলেছে।

সম্প্রতি নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ বজলুর রশীদ জানান- আমি নিজেও তাদের অবস্থা দেখে এসেছি। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানাব।

৫নং পুটিমারা ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি চেয়ারম্যান আ’লীগ নেতা মোঃ সরোয়ার হোসেন জানান- সত্যিই ওই ৪০ জন বিরাঙ্গনার মধ্যে অনেকেই হত দরিদ্র পরিবারে রয়েছে। আমি নতুন নির্বাচিত হয়েছি, পরবর্তীতে তাদের যতকিঞ্চিত পুর্নবাসনের জন্য সহায়তা করার চেষ্টা করব। ছবিঃ সংগ্রহিত

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য