নরকে স্বাগতম রিও বিমানবন্দরে অভিনব প্রতিবাদরিও ডি জেনিরো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামার পর যাত্রীরা যখন বেরুচ্ছিলেন, তাদের যেভাবে স্বাগত জানানো হলো, তা দেখে তারা বিরাট ধাক্কা খেয়েছেন।

যাত্রীদের অভ্যর্থনা জানাতে পরিবারের সদস্য,পরিচিতজন বা ট্যাক্সি ড্রাইভাররা যেখানটায় দাঁড়িয়ে থাকেন, সেখানে দেখা গেল এক অভিনব দৃশ্য।

‘নরকে স্বাগতম’ লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে সেখানে দাঁড়িয়ে ছিলেন পুলিশ আর দমকল কর্মীরা। তাদের প্ল্যাকার্ডে আরও লেখা ছিল, “পুলিশ আর দমকল কর্মীদের বেতন দেয়া হচ্ছে না। রিও ডি জানেরিওতে যারা আসছে, তাদের কেউই নিরাপদ নয়।”

পুলিশ আর দমকল কর্মীদের এই অভিনব প্রতিবাদ সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক শোরগোল তুলেছে। ফটো শেয়ারিং সাইট ইমগুরে পোস্ট করা উপরের ছবিটি শেয়ার করা হয়েছে তিরিশ লক্ষ বার।

ব্রাজিলের এই শহরের পুলিশ বিক্ষোভ করছে তাদের বেতন দেরিতে দেয়ার প্রতিবাদে।

পুলিশের একজন মুখপাত্র বলেছেন, পরিস্থিতি খুবই সংকটজনক। সবকিছু ভেঙ্গে পড়ার উপক্রম হয়েছে।

রিওর গভর্ণর ফ্রান্সিসকো ডরনেলেসে একটি ব্রাজিলিয়ান সংবাদপত্রকে জানিয়েছেন, ফেডারেল সরকার তাদের ৮৬ কোটি ডলার দেবে বলে প্রতিশ্রুতি দিলেও এখনো সেই অর্থ পাওয়া যায়নি। এর ফলে তাদের অনেক পুলিশ টহল বন্ধ করে দিতে হচ্ছে। এমনকি গাড়ির জ্বালানি কেনার অর্থও তাদের নেই।

অলিম্পিক গেমসের আগে ব্রাজিল এখন যে নানামুখী সংকটে আছে, তার মধ্যে এখন যোগ হলো রিওর পুলিশ আর দমকল কর্মীদের এই প্রতিবাদ।

ব্রাজিলের গত কয়েক মাস ধরে তীব্র অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সংকট চলছে। প্রেসিডেন্টের পদ থেকে ডিলমা রুসেফকে অপসারণ করা হয় তাঁর সরকার বাজেট ঘাটতি সম্পর্কে বিভ্রান্তিকর তথ্য দিয়েছে এই অভিযোগে।

এর পাশাপাশি চলছে জিকা ভাইরাস নিয়ে সংকট। অনেক দেশের ক্রীড়াবিদ ইতোমধ্যে অলিম্পিক গেমস থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন এই জিকা ভাইরাস আতংকে।

তবে রিও অলিম্পিকের সাংগঠনিক কমিটির কর্মকর্তারা বলছেন, জিকা ভাইরাসের বিপদ অহেতুক বাড়িয়ে দেখানো হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য