দিনাজপুরে চোখের যতœ ও অন্ধত্ব প্রতিরোধ বিষয়ক এডভোকেসি সভানিজস্ব প্রতিনিধিঃ দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. অমলেন্দু বিশ^াস বলেছেন, চোখ মানুষের অমূল্য সম্পদ এবং অত্যন্ত সংবেদনশীল অংশ। আর চোখের অনেক ছোট এবং সাধারণ অসুখ থেকে বড় জটিলতা এমনকি অন্ধত্বের সৃষ্টি হয়। যদি প্রাথমিক অবস্থায় চোখের এই সব সাধারণ রোগ বা সমস্যাগুলোর সঠিক চিকিৎসা বা যতœ দেয়া যায় তাহলে অন্ধত্বের হার অনেকাংশে কমিয়ে আনা সম্ভব।

১৫ জুন বুধবার দুপুর ২ টায় পোভার্টি এলিভিয়েশন কমিটি (প্যাক) বাংলাদেশ কনসালটিং ফার্ম এর সহযোগিতায় এবং ‘স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরো, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর’ ‘স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ’ এর বাস্তবায়নে ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ইউনিটের আয়োজনে দেশব্যাপী চোখের যতœ ও অন্ধত্ব প্রতিরোধ বিষয়ক এডভোকেসি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্যাক বাংলাদেশ কনসালটিং ফার্ম এর প্যাকেজ নং- ঐঊচ-ঝ-০৩/২০১৫-২০১৬ এর আওতায় ৩০টি জেলার ৬০টি উপজেলা ও ৬০টি ইউনিয়নে চোখের যতœ ও অন্ধত্ব প্রতিরোধ বিষয়ক এডভোকেসি সভা ও প্রচারনামুলক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হয়।

এডভোকেসি সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার মো. সাইফুল ইসলাম। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জুনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার মো. নুরুল ইসলাম, সংরক্ষিত ৪, ৫, ৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর মাসুদা পারভীন মিনা প্রমুখ। সভায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক/শিক্ষার্থী, এনজিও’র মাঠ কর্মী, স্কাউট অংশগ্রহন করেন।

প্রসঙ্গক্রমে উল্লেখ্য যে, গত ১২ জুন সদর উপজেলার ৬নং আউলিয়াপুর ইউনিয়নের হরিহরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ও ১৩ জনু বিরল উপজেলার ৩নং ধামইর ইউনিয়নের ঢেরাপাটিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এবং ১৪ জুন সদর উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ে উক্ত প্রচারাভিযানের এডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য