নার্সারী করে তফাজ্জলের ভাগ্য বদলরাণীশংকৈল প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাও জেলার বালিয়াডাঙ্গী-রাণীশংকৈল সীমান্ত এলাকা কড়িয়া কলন্দা গ্রাম। ভৌগলিক এলাকা বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা। উক্ত গ্রামের আঃ রহমানের ৩ মেয়ে ১ ছেলের মধ্যে মোঃ তফাজ্জল হোসেন দ্বিতীয়। তিনি ধামগানি পুকুর পাড়ে গড়ে তুলেছেন বারমাসি নামে একটি নার্সারী। এখানে দেশী-বিদেশী, হাইব্রীড, বিভিন্ন প্রজতির আম, জাম, লিচু, বনজ, ফলজ, ঔষধী, শোভা বর্ধনকারী, ফুল, পামট্রি, ক্যাকটাসসহ নানা জাতের চারার সমাহার এখানে। তিনি জানান  ১৯৮৬ সালে নবম শ্রেণীর ছাত্র ছিলেন।

ব্র্যাকের প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজস্ব ১ শতাংশ জমির উপর নার্সারীর কাজ শুরু করেন তিনি। এখন নার্সারীর কাজে লাভজনক ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। তার হাতে তৈরী চারা দিয়ে জেলার প্রতিটি উপজেলা সহ অন্য জেলার বিভিন্ন উপজেলায় সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে আম লিচুসহ বিভিন্ন জাতের বড় বড় বাগান লাগানো আছে। বর্তমানে কড়িয়া কলন্দার ধামগানি পুকুর পাড়ের প্রায় ৩ একর জমি বন্ধক নিয়ে প্রধান নার্সারীর কাজ চলছে। জমিটি চুক্তি মোতাবেক আগামীতে আরো ৮ বছর রয়েছে।

এ ছাড়াও ছোট বড় আরো ৪ টি নার্সারী রয়েছে তার। নার্সারীতে ফুটে থাকা গোলাপ, ডালিয়া, রজনী গন্ধা, বেলী, গ্যান্দা সহ নানা জাতের ফুল দেখতে পাওয়া যায়। ভিতরে ঢুকলেই মন ভরে যায় বিভিন্ন প্রজাতির ফুল, ফল, বনজ, ঔষধি গাছ দেখে। ছোট ছোট গাছে ঝুলে থাকা আম দেখতে পেয়ে আরো ভালো লাগে।

তেজপাতা, বিলাতি তেতুল, কামরাঙ্গা, হাইব্রীড ডাব, ডালিম, আনার আরো কত ফলজ গাছ চোখে পড়ে। প্রথমে রাণীশংকৈল শাখা ব্র্যাকের সহযোগিতায় নেকমরদ ইউপি কার্যালয়ে নার্সারী, মৎস ও গবাদি পশুর উপর ৩ দিনের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষে নার্সারী করার কাজে উদ্বুদ্ধ হন তিনি। ব্র্যাকের প্রশিক্ষণ ও তাদের উৎসাহে নার্সারী তৈরী করে তফাজ্জল হোসেন’র ভাগ্য বদল হয়েছে।

মোঃ তফাজ্জল হোসেন জানান, আমার নিজের কাছে থাকা ১০০ টাকা ও আরেক জনের কাছ থেকে ৫০ টাকা হাওলত নিয়ে প্রথমে ১ শতাংশ জমির উপর নার্সারীর কাজ শুরু করি। এখন আমার ৫টি নার্সারী রয়েছে। প্রতিদিন ৭-১০ জন লোক নার্সারীতে কাজ করে থাকে। মাসিক প্রায় ৩৫ হাজার টাকা খরচ হলেও আয়ের পরিমানটা বেশী হওয়ায় বেশ স্বাচ্ছন্দ্যেই সংসার চলে।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ শাফিয়ার রহমান জানান, আমরা সার্বক্ষনিক তফাজ্জল হোসেনের বারমাসি নার্সারীর খোজ খবর রাখি। পরামর্শ সহযোগিতা করে থাকি সার্বিকভাবে। উপজেলায় অনুষ্ঠিত কৃষি মেলায় অংশ গ্রহণ করে তফাজ্জল হোসেন বেশ কয়েকবার প্রথম হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য