ভ্রাম্যমান আদালত কর্তৃক লরি ভর্তি ভেজাল জ্বালানী তেল আটকনিজস্ব প্রতিনিধিঃ ভেজাল বিরোধী চলমান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত ভেজাল তেল ভর্তি একটি ট্যাংকলরী আটক করেছে। বিলম্বে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের ভেজাল বিরোধী চলমান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ভেজাল তেল ভর্তি একটি ট্যাংকলরী (যার নম্বর- ঢাকা মেট্রো-ট ১৪-২৩০৩) সম্প্রতি শহরের নিউটাউন এলাকার লুৎফা পেট্রোল পাম্প থেকে আটক করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান কর্তৃক দেশের প্রতিটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে চিঠি পাঠিয়ে শতর্ক করে দেয় যে বিভিন্ন স্থান থেকে ভেজাল জ্বালানী তেল ট্যাংকলরী করে দেশের বিভিন্ন জেলা শহরের পেট্রোল পাম্পগুলোতে সরবরাহ করা হচ্ছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত দিনাজপুর জেলা শহরসহ বিভিন্ন উপজেলার পেট্রোল পাম্পগুলোতে ভেজাল বিরোধী অভিযান চালাতে থাকে।

লড়ি থেকে পাইপ দিয়ে জ্বালানী তেলগুলো লুৎফা পেট্রোল পাম্পের তেলের হাউস-এ ভর্তি করার পূর্বে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে এ দৃশ্য দেখতে পেয়ে তেল ভর্তি লরিটি জব্দ করে এবং পাম্পে কর্মরত কর্মচারীদের সাথে কথা বললে ভ্রাম্যমান আদালতকে পাম্পে কর্মরত কর্মচারীরা জানান আমাদের পাম্পে তেলগুলো আনা হয়েছিল। কোন ক্যাশ চালান এবং গেট পাস ছাড়াই তেল ভর্তি লড়িটি দিনাজপুরে আসে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত প্রাথমিকভাবে বিএসটিআই এবং বিপিসিকে অবগত করেন। পরে লরি থেকে তেলের সেম্পল নিয়ে যৌথ কর্তৃপক্ষ পরিক্ষার জন্য টেস্টে পাঠিয়েছে। উল্লেখ্য, ভোক্তা অধিকার আইন লংঘন করে এসব ভেজাল জ্বালানী তেল আনাতে কালো ধোয়া বের হয় ফলে মানুষের শরীরে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ জোবায়ের রহমান রাশেদ।

ভ্রাম্যমান আদালতকে পুলিশ ছাড়াও সহযোগিতা করেন র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটলিয়ন র‌্যাব এর দিনাজপুর কোম্পানী কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ। অন্যান্য পেট্রোল পাম্পগুলোতে ভেজাল বিরোধী অভিযান চালাতে জেলার সচেতন মানুষ জেলা প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য