মমতার শপথ শুক্রবার দুপুরে, চলছে জোর প্রস্তুতিশুক্রবার ২৭ মে কলকাতার রেড রোডে দ্বিতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিতে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ভারতীয় সময় দুপুর একটায় (বাংলাদেশ সময় দুপুর দেড়টা) শপথ নেবেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর শপথ অনুষ্ঠানকে ঘিরে জোরদার করা হয়েছে নিরাপত্তা। এদিকে শপথ অনুষ্ঠানকে সফল করতে চলছে জোর প্রস্তুতি।
ভারতীয় সংবাদমাধ্যম কলকাতা টোয়েন্টিফোর তাদের এক প্রতিবেদনে এসব কথা জানিয়েছে।

কলকাতা টোয়েন্টিফোর জানিয়েছে, শপথ অনুষ্ঠানের আগে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢেলে সাজতে চলেছে প্রশাসন৷ তারা জানিয়েছে, ওই দিনের অনুষ্ঠানে নিরাপত্তায় থাকছে ড্রোন, আটটি সিসিটিভি ক্যামেরা, তিনটি কুইক রেসপন্স টিম। এছাড়াও থাকবে ফায়ার সার্ভিস৷ নামানো হচ্ছে কয়েক হাজার পুলিশ৷

নিজস্ব সূত্রের বরাতে কলকাতা টোয়েন্টিফোর জানিয়েছে, শুক্রবার বেলা একটায় শপথ নেবেন মুখ্যমন্ত্রীসহ নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা৷ শপথ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিতদের মধ্যে উপস্থিত থাকতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এছাড়া আসছেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে।

দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও আসছেন বলে জানা গেছে। পাশাপাশি সোনিয়া গান্ধী-রাহুল গান্ধীর মতো হাইপ্রোফাইল নেতৃত্বেরও আসার সম্ভাবনা রয়েছে মমতার শপথ অনুষ্ঠানে৷ আমন্ত্রিতদের তালিকায় রয়েছে বলিউডের বিগ বি থেকে শাহরুখ খান৷ গোটা টলিউডও৷

আমন্ত্রিতের তালিকায় আরও আছেন কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি থেকে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, বিরোধী দলনেতা, কংগ্রেস-বাম -বিজেপির রাজ্যস্তরের নেতারা৷ অবশ্য বিরোধীরা ইতিমধ্যে এই অনুষ্ঠান বয়কট করবে বলেই হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

নিজস্ব সূত্রের বরাত দিয়ে কলকাতা টোয়েন্টিফোর জানিয়েছে, দর্শকদের জন্য থাকবে ২০ হাজার আসন৷ সাধারণ মানুষ যেন শপথ অনুষ্ঠান দেখতে পারেন, সেজন্য শহরের বিভিন্ন স্থানে লাগানো হবে ছয়টি জায়েন্ট স্ক্রিন৷

প্রশাসন সূত্রের বরাত দিয়ে কলকাতা টোয়েন্টিফোর জানায়, ‘নবান্ন’তে মুখ্যমন্ত্রীকে গার্ড অফ অনার দেওয়ারও পরিকল্পনা রয়েছে পুলিশের৷ দেশ-বিদেশের ভিআইপি অতিথি সহ বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী-মন্ত্রীদের থাকার জন্য ইএম বাইপাসের ধারে একটি পাঁচতারা হোটেলে যাবতীয় বন্দোবস্ত করা হয়েছে৷

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য