সেলিম ওসমানকে সংসদ থেকে বহিস্কারের দাবী করেছেন দিনাজপুরের শিক্ষক সমাজনিজস্ব প্রতিনিধিঃ নারায়নগঞ্জের শিক্ষক লাঞ্ছনার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচীতে সাংসদ সেলিম ওসমানকে সংসদ থেকে বহিস্কার, গ্রেফতার ও বিচারের দাবী করেছেন দিনাজপুরের শিক্ষক সমাজ।

২১ মে শনিবার প্রেসক্লাব সম্মুখ সড়কে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি দিনাজপুর জেলা শাখার উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তারা বলেন, নারায়নগঞ্জের শিক্ষন শ্যামল কান্তি ভক্তের বিরুদ্ধে আনিত অবিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় প্রধান শিক্ষক পদে পুনর্বহাল এবং স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটি বাতিল হওয়ায় প্রমাণিত হয়েছে শ্যামল কান্তি ভক্তের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ ছিল মনগড়া। পরিকল্পিতভাবে তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করে চরমভাবে অপমানিক করা হয়েছে। তিনি ১৭ বছর ধরে সুনামের সঙ্গে শিক্ষকতা করলেও তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ উঠেনি।

তার স্কুলে নতুন কমিটি দায়িত্ব নেয়ার পর তাকে নানাভাবে হয়রানী ও অপদস্ত করা হয়েছে, যার ঘৃন্যতম রুপ দেশবাসী প্রত্যেক্ষ করেছে ভিডিও ফুটেচের মাধ্যমে। বক্তারা আরো বলেন, শ্যামল কান্তি ভক্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে হয়তো হারিয়ে যাওয়া চাকুরীটি ফেরত পেয়েছেন কিন্তু সেলিম ওসমান নামের এক সংসদ সদস্য তাকে চরমভাবে অপমানিত ও সম্মান হানি করলেন। সেই সম্মান কে ফিরিয়ে দেবে। দিনাজপুরের শিক্ষক সমাজ সাংসদ সেলিম ওসমানের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছে।

বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি আহসানুল হক মুকুল এর সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির আহবায়ক বদিউজ্জামান বাদল, কেবিএম কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মোঃ সাইফুদ্দিন আখতার, সরকারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক জলিল আহমেদ, কলেজিয়েট স্কুল এন্ড  কলেজের অধ্যক্ষ হাবিবুল ইসলাম বাবুল, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক ও পাঁচকুড় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মতলুবুল মামুন, স্বারদেশ্বরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মোঃ শফিকুল ইসলাম, দিনাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নেজামুল ইসলাম, জুবিলি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বুনু বিশ্বাস, শংকরপুর এম. দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জয়নাল আবেদিন, জেলা সরকারি মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি রাজিউদ্দীন চৌধুরী, কাশিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লোকমান হাকিম প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য