পীরগঞ্জে ওয়াজেদ মিয়ার ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী পালিতরংপুরের পীরগঞ্জে দিনভর নানা কর্মসূচী পালনের মধ্য দিয়ে দেশবরেণ্য পরমাণু বিজ্ঞানী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বামী প্রয়াত ড. এমএ ওয়াজেদ মিয়ার ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হয়।

সোমবার সকালে লালদীঘির ফতেপুরে ওই বিজ্ঞানীর কবরে ফুল দিয়ে পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলালীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ, পরমাণু  বিজ্ঞানী ওয়াজেদ ফাউন্ডেশন, পীরগঞ্জ প্রেসক্লাব, বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষনা পরিষদ, কেন্দ্রিয় ওলামালীগ, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুরের জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মাজহারুল ইসলাম, রংপুর জেলা ছাত্রলীগ, জেলা যুবলীগ, মহানগর যুবলীগ, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ড.ওয়াজেদ রির্চাচ ইনস্টিটিউট, ইনস্টিটিউট অব নিউক্লিয়ার মেডিসিন এন্ড এ্যালায়েড সায়েন্স, ওয়াজেদ স্মৃতি সংসদ, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের জননেত্রী পরিষদ, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, শাহ ইসমাঈল গাজী (র:) কোল্ড স্টোরেজ, শাহ ইসমাঈল গাজী (র:) জুট মিলস লিমিটেড, রংপুর জেলা ইট ভাটা মালিক সমিতি, নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যানগণসহ অন্যন্য পেশাজীবি ও সামাজিক সংগঠন।

এছাড়াও পীরগঞ্জ আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর প্েষও শ্রদ্ধাঞ্জলি দেয়া হয়েছে। সকালেই জয়সদন প্রাঙ্গণে বিজ্ঞানীর স্মৃতিচারণ করে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে রংপুর জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি ও বিজ্ঞানীর বড় ভাতিজা একেএম ছায়াদত হোসেন বকুলের সভাপতিত্বে  জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা অধ্যাপক নুরুল আমিন রাজা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক তাজিমুল ইসলাম শামিম, উপাধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম পাশা স্মৃতিচারণ করেন। পরে সেখানেই মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠানের পর গরিব দু;খীর মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়। এছাড়াও পীরগঞ্জ প্রেসক্লাব ওই দিন সন্ধ্যায় পৃথক আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের উদ্যোগ নেয়। উল্লেখ্য, বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনের অধিকারী ওই বিজ্ঞানী ১৯৪২ সালের ১৬ ফ্রেরুয়ারী লালদিঘীর ফতেপুরে একটি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন।

তিনি ২০০৯ সালের ৯ মে ইন্তেকাল করেন। বঙ্গবন্ধুর জামাতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বামী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যান ছিলেন। মৃত্যুর পর তাঁর শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী পীরগঞ্জ উপজেলার ফতেপুর গ্রামে তাঁর বাবা-মায়ের কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য