কবীগুরু রবিন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৫তম জন্মতিথিতে প্রভাতী অনুষ্ঠানস্টাফ রিপোর্টার ॥ “ভয় নাই, ভয় নাই নাই রে-থাক্ পড়ে থাক্ ভয় বাইরে”- কবিগুরুর এই কবিতার মধ্য দিয়ে শুরু হয় জেলা শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গনে রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলিন পরিষদ দিনাজপুর আয়োজিত বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৫ তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে আলোচনা সভা, সঙ্গীতানুষ্ঠান, নৃত্য ও কবিতা আবৃত্তি।

জাতীয় রবীন্দ্র সংঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ দিনাজপুর এর সভাপতি রবিউল আউয়াল খোকা এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রবীন রাজনীতিবিদ ও সামাজিক সংগঠক আবুল কালাম আজাদ, প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক মোঃ শফিকুল ইসলাম।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন পরিষদের সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আবু সাঈদ। সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন নুরুল মতিন সৈকত। সঙ্গীত পরিচালনা করেন প্রিয়াাংকা দাস চৈত্রী ও প্রদীপ ঘোষ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ছিলেন মানুষের কবি। প্রেম ও শান্তির কবি। তার চিন্তা চেতনা মা মাটি মানুষের হৃদয় স্পর্শ করে। তার কবিতা আমাদের মানবতার প্রেম শেখায়।

তাই প্রজন্মকে রবীন্দ্র চর্চায় উৎসাহিত করতে হবে। তাহলে আমাদের বাঙ্গালী সাংস্কৃতিকর উন্নয়ন ঘটবে। “মস্ত বড়োর লোভ শেষে-মস্ত ফাঁকি জোটে এসে, ব্যস্ত-আশা জড়িয়ে পড়ে-সর্বনাশার ফাঁদে ॥ রবীন্দ্রনাথ আমাদের লোভ লালস, দূর্নীতি থেকে বিরত থাকার শিক্ষা দিয়ে গেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য