জলদস্যুদের দিতে হয়েছে ৪ লাখ ডলার মুক্তিপণ২০১৫ সালে গিনি উপসাগরে জাহাজ হাইজ্যাকের ঘটনায় জলদস্যুদের ৪ লাখেরও বেশি মুক্তিপণ দিতে হয়েছে। বিবিসি বলছে, সমুদ্র বিষয়ক এই প্রতিবেদনে এই তথ্য দেওয়া হয়েছে। বিশ্বে নাবিকদের জন্য ওই অঞ্চলটি সবচে ভয়ঙ্কর। ওখানকার জলদস্যুদের নির্মমতা সবচে বেশি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রায় ৩২ জন নাবিককে চলতি বছর অপহরণ করা হয়েছে। ২০১৫ সালে এই সংখ্যা ছিল ১৫ জন। মূলত তেল উৎপাদক অঞ্চল নাইজেরিয়া উপকূলে মুক্তিপণ আদায়ের জন্য অপহরণের ঘটনাগুলো ঘটে থাকে। নাইজেরিয়ার রাজনৈতিক পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় অপহরণের ঘটনা বেড়ে গেছে বলে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গোষ্ঠী ওশানস বিয়ন্ড পাইরেসি গ্রুপ ওই প্রতিবেদনে জানিয়েছে। কারণ, নাইজেরিয়ার জলসীমায় টহল ব্যবস্থার উন্নতি হওয়ায় গেল বছর থেকে তেলচুরির ঘটনা কমে গেছে।

পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের মূল্য কমে যাওয়ায় এই জ্বালানি কম লাভজনক হয়ে উঠেছে। গেল বছর অন্যতম বড় ঘটনা ছিল মাল্টার পতাকাবাহী এমটি কালামোস জাহাজ আক্রমণের ঘটনা। তেলবাহী এই সুপার ট্যাঙ্কারটি থেকে যাত্রীদের অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার পর ৪ লাখ মার্কিন ডলার মুক্তিপণের বিনিময়ে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে কে বা কারা এই মুক্তিপণ দিয়েছে তা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য