Panchagar Mapমোঃ ইউসুফ আলী,আটোয়ারী(পঞ্চগড়) থেকে : পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে ৫ ইউনিয়নে ১৮ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ভোট যুদ্ধে নেমেছেন। উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে প্রাপ্ত তথ্যমতে  আটোয়ারীতে ৬ টি ইউনিয়নের মধ্যে ৫নং বলরামপুর ইউনিয়নে মামলাজনিত কারনে ভোট হচ্ছেনা। অন্যান্য ৫ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন, ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩জনের মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোঃ ওমর আলী (নৌকা),  বিএনপি মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুস সামাদ আজাদ(ধানের শীষ) ও বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী সতন্ত্র হিসেবে প্রাক্তন চেয়ারম্যান মির্জা নুরুল ইসলাম (হেলাল) (ঘোড়া)। ২নং তোড়িয়া ইউনিয়নে ৬ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোঃ জয়নুল হক (নৌকা), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ ফকরুল আলম (ধানের শীষ), বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী সতন্ত্র হিসেবে মোঃ আব্দুর রহিম (ঘোড়া), সতন্ত্র হিসেবে প্রাক্তন চেয়ারম্যান হাসান হাবিব আল আজাদ(আনারস), মোঃ রবিউল ইসলাম (চশমা) ও মোঃ দলিলুর রহমান (মটর সাইকেল)। ৩নং আলোয়াখোয়া ইউনিয়নে মাত্র ২ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। এদের মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রদীপ কুমার রায় (নৌকা) ও বিএনপি মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ তৌহিদুল ইসলাম (ধানের শীষ)।

৪নং রাধানগর ইউনিয়নে ৪ জন প্রার্থী প্রচারনার ঝড় তুলেছে। এদের মধ্যে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী  বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ আবু জাহেদ (নৌকা), আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সতন্ত্র হিসেবে সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ রশিদুল ইসলাম(আনারস), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মোঃ বদিউজ্জামান (মানিক) (ধানের শীষ) ও বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী সতন্ত্র হিসেবে মোঃ জহিরুল ইসলাম (ঘোড়া)। ৬ নং ধামোর ইউনিয়নে ৩ জন প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোঃ আবু তাহের (দুলাল) (নৌকা), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী কাজী নজরুল ইসলাম(দুলাল)(ধানের শীষ) এবং বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী সতন্ত্র হিসেবে সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ জালাল উদ্দীন (মটর সাইকেল) নির্বাচনী প্রচারনায় মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। ১নং মির্জপুর ইউনিয়নের ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে কে চেয়ারম্যান হবে কেউ মুখ খুলে বলতে পারছেন না। কারন ৩ প্রার্থীই যোগ্যতা সম্পন্ন। অনেকের মতে নুরুল ইসলাম হেলাল (ঘোড়া মার্কা) একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা তাঁর বয়সের পাল্লা ভারী হয়েছে। বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ আজাদ(ধানের শীষ) বলেন, ৫ বছর আমি চেয়ারম্যানের দায়িত্বে ছিলাম,দায়িত্ব পালনে অনিচ্ছাকৃত ত্র“টি হতেই পারে, ইউনিয়নবাসীকে আমার সাধ্যমত সেবা দিয়েছি। ওমর আলী (নৌকা মার্কা) বলেন, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রথম নির্বাচন করেছি। কয়েকটি ভোটে আমি চেয়ারম্যান হতে পারিনি। আশাকরি এবার ভোটাররা আমার নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আমাকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবে-ইনশাল্লাহ। ২নং তোড়িয়া ইউনিয়নে ৬ জন প্রার্থীর মধ্যে ভোট যুদ্ধ চলছে।

আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচনী প্রচারনা চালচ্ছেন জয়নুল হক (কহিনুর)। তিনি দির্ঘদিন ইউপি মেম্বার কিছুদিন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন।বর্তমান চেয়ারম্যান ফকরুল আলম বিএনপি’র মনোনীত ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে ভোটারদের কাছে ভোট চাচ্ছে কিন্তু বেশ কিছু বিএনপি’র নেতাকর্মী বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুর রহিম ঘোড়া মার্কা প্রতিকের নির্বাচনে নেমেছে। এছাড়া সতন্ত্র হিসেবে রবিউল ইসলাম চশমা প্রতিক,দলিলুর রহমান মটর সাইকেল প্রতিক নিয়ে ভোটারদের  বাড়ি বাড়ি বেড়াচ্ছেন।অনেকের মতে দলীয় ও সতন্ত্র প্রার্থীরা মাঠ চষে বেড়ালেও শেষ পর্যন্ত  আব্দুর রহিম (ঘোড়া মার্কা) ও হাসান হাবিব আল আজাদের মধ্যে চেয়ারম্যান নির্বচিত হতে পারে।  ৩ নং আলোয়াখোয়া ইউনিয়নে মাত্র  ২জন প্রার্থী নির্বাচনের ঝড় তুলেছে। এখানে কে চেয়ারম্যান হবে ভোটাররা মুখ খুলে প্রকাশ করছেনা। প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রদীপ কুমার রায় ইতিপুর্বে একজন সফল চেয়ারম্যান হিসেবে এলাকায় পরিচিতি আছে। এবার তাঁকে নৌকা প্রতিক দেওয়ায় এলাকার আওয়ামী লীগের একটি অংশ অন্তর্জালায় ভুগছে। বর্তমান চেয়ারম্যান তৌহিদুল ইসলাম  ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করছেন। তিনি এলাকার অনেক গরীব-দু:খী ,অসহায় ও রোগাক্রান্ত মানুষকে অর্থদিয়ে  বা পরামর্শ দিয়ে  সহযোগিতা করেছেন ,তিনি বলেন,একটি চেয়ারম্যানের যা করা দরকার  জনগনের জন্য তাই করেছি। নিবেদিত প্রাণ হিসেবে কাজ করেছি , এখন বিবেচনা করবে জনগন।

আলোয়াখোয়া ইউনিয়নে কে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবে হিসাব মিলাতে পারছেনা কেউ। ৪নং রাধানগর ইউনিয়নে ৪ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। এরমধ্যে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আবু জাহেদ নৌকা প্রতিক নিয়ে মাঠে নেমেছেন। আবু জাহেদ বলেন, ৫বছরে রাধানগর ইউনিয়নে অনেক উন্নয়ন করেছি। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য পুনরায় নির্বাচন করছি।

আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান রশিদুল ইসলাম বলেন,আমি ইতিপুর্বে চেয়ারম্যান থাকাকালীন আমার ইউনিয়নের সকলের প্রতিটি মহুর্তে খোজ-খবর   রেখেছি। সকল ধর্ম-বর্ণের লোকদের সমানভাবে দেখেছি। চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় সরকারি অনুদান ছাড়াও আমার ব্যাক্তিগত অনুদান বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দান করেছি। এসব জনগন মনে রাখলে ইনশাল্লাহ জনগন আমাকে ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবে।  বিএনপি মনোনীত প্রার্থী বদিউজ্জামান মানিক ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করছেন। মানিক বলেন,বিএনপি’র নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা যদি আমার সপক্ষে থাকেন তাহলে ইনশাল্লাহ আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবো। বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী জহিরুল ইসলাম বলেন, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমি চেয়ারম্যান নিশ্চিত । কিন্তু কিভাবে অভিনব কৌশলে আমাকে ১১ ভোটে পরাজিত ঘোষনা করা হয়। আমি চ্যালেঞ্জ করেছিলাম। চ্যালেঞ্জে সফল হতে পারিনি। এবার প্রচারনা চালাচ্ছি, সবার দোয়া থাকলে ইনশাল্লাহ আমি চেয়ারম্যান হবো। ৬ নং ধামোর ইউনিয়নে ৩ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদন্দিতা করছেন। এতে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আবু তাহের (দুলাল) নৌকা প্রতিক নিয়ে  প্রচরনা চালাচ্ছেন। অপরদিকে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী কাজি নজরুল ইসলাম (দুলাল) ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে নির্বাচনী প্রচারনা চালাচ্ছেন। দুলাল বলেন, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অল্প ভোটের ব্যাবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারিনি।  এবার আশা করি ইনশাল্লাহ চেয়ারম্যান হবো। বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী প্রাক্তন চেয়ারম্যান জালালউদ্দীন বলেন, ইতিপুর্বে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছি।  আমার ভালমন্দ জনগন ভালই জানেন। আমার ভোটের ব্যাপারে জনগনই বিবেচনা করবেন।

আটোয়ারীতে ৫টি ইউনিয়নে  তুমুল ভোট যুদ্ধ চলছে। তবে কোন ইউনিয়নে সহিংসতার ঘটনা না ঘটলেও ৪নং রাধানগর ইউনিয়নে মাঝে মাঝে ছোটখাট সহিংসতা ঘটছে। জানাগেছে রাধানগর ইউনিয়নে নৌকা ও আনারস প্রতিকের মধ্যে এ সহিংসতার ঘটনা ঘটছে। এলাকার সচেতন মহল আশংকা করছেন, নির্বাচনের পুর্বে অথবা পরে যেকোন মহুর্তে এ দু’গ্র“পের মধ্যে বড় ধরনের সংঘর্ষ ঘটিয়ে আইন-শৃংখলার চরম অবনতি হতে পারে। সহিংসতার ঘটনা রোধে স্থানীয় প্রশাসনকে নিরপেক্ষভাবে কঠোর ভুমিকা রাখতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন এলাকার শান্তিপ্রিয় সচেতন মহল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য