হাবিপ্রবিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এমপিনিজস্ব প্রতিনিধিঃ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এমপি বলেছেন, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় একটি সুসংগঠিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বিশ্ববিদ্যালয়টি খুব অল্প সময়ে দেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে।

এর শিক্ষাদান পদ্ধতি, গবেষণা, সিলেবাস, এবং ক্যাম্পাসের মনোরোম পরিবেশের কারণে শুধু দেশের শিক্ষার্থীরা নয় বিদেশী শিক্ষার্থীরা এ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা গ্রহনের জন্য আগ্রহী হয়ে উঠেছে। ভারত, নেপাল, জিবুতি, নাইজেরিয়া, সোমালিয়া ও ভুটানের ১৪৫ জন শিক্ষার্থী এখানে লেখাপড়া করছে। যা প্রশংসার দাবিদার। শিক্ষা ক্ষেত্রে এ সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখে ভবিষ্যতে বিশ্ববিদ্যালয়টি উচ্চ শিক্ষা বিস্তারে আরো ভূমিকা রাখবে এবং দেশ বিদেশে সুনাম অর্জন করবে।

বুধবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে ইন্টারন্যাশনাল কালচারাল ফেস্টিভেলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
হাবিপ্রবিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এমপি(2)
মন্ত্রী বলেন, অনেক বাঁধা সত্ত্বেও এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। প্রথমিক শিক্ষা, মাধ্যমিক শিক্ষা, নারী শিক্ষা, নারী অধিকার, গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর অধিকার ও স্বাস্থ্য সেবাসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব সাফল্য এসেছে। আমাদের সৌভাগ্য যে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা এ অগ্রযাত্রায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তাঁর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ দ্রুত গতিতে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

বিদেশী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তোমরা যারা বাংলাদেশের একটি অন্যতম শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতে এসেছো, তোমাদের জন্য এটি এক অপূর্ব সুযোগ। এখান থেকে জ্ঞান অর্জন করে তা নিজ দেশে কাজে লাগাবে। ছাত্র জীবন হচ্ছে শিক্ষার সময়। সময়কে কাজে লাগাও। কারন এই সময় আর ফিরে আসবে না। লেখাপড়ার ব্যাপারে নিবেদিতপ্রাণ হতে হবে। যে বিষয়ে পড়াশুনা করনা কেন মনোযোগ সহকারে পড়াশুনা কর।

তিনি সাধারন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিদেশী শিক্ষার্থীরা অনেক দুর থেকে এখানে পড়তে এসেছে। তোমরা তাদের সাথে ভাল ব্যবহার করবে। সহযোগিতার হাত বাড়াবে। আমাদের সংস্কৃতি বিষয়ে ধারনা দিবে। পরবর্তী জীবনে এটি তাদের কাছে স্মৃতি হয়ে থাকবে। শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নিজ দেশের শিক্ষার্থীদের প্রতি যেভাবে দেখবেন তাদেরকেও সেভাবে দেখবেন। প্রয়োজনে তাদের প্রতি একটু বেশী যত্ন নেবেন।

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. রুহুল আমিন’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নেপাল দূতাবাসের চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স মি. দিল্লি প্রসাদ আচারিয়া। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. মো. সাইফুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স সেকশনের ইনচার্জ প্রফেসর ড. বিকাশ চন্দ্র সরকার, হাবিপ্রবি’র ছাত্রলীগ নেতা মো. আসাদুজ্জামান জেমী, নাহিদ আহমেদ নয়ন, নেপালের শিক্ষার্থী হেম কুমার সাহা, নাইজেরিয়ার শিক্ষার্থী মোস্তাফা ওসমান বাবা, সোমালিয়ার শিক্ষার্থী ইউনুস আলী, ভুটানের শিক্ষার্থী লিমু সেহরাব প্রমূখ।

এর আগে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরিতে মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার এর উদ্বোধন করেন এবং বিকাল ৪ টায় চিরিরবন্দর-খানসামা এলাকার শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময় করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য